ভারত-কানাডা সম্পর্কে উত্তাপ, ‘বাণিজ্য মিশন’ পেছাচ্ছে

পাঁচ দিনের সম্মেলনের ফাঁকে ট্রুডোর সঙ্গে কেবল অনানুষ্ঠানিকভাবে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎ করেন মোদী।

নিউজ ডেস্ক
Published : 7 Feb 2024, 04:54 PM
Updated : 7 Feb 2024, 04:54 PM

কানাডা সরকার ভারতের সঙ্গে আগামী অক্টোবরে অনুষ্ঠেয় ‘বাণিজ্য মিশন’ পেছানোর ঘোষণা দিয়েছে। শুক্রবার জানিয়েছেন এক কর্মকর্তা। কোনও কারণ উল্লেখ না করেই কানাডার বাণিজ্যমন্ত্রী ম্যারি নাগের মুখপাত্র এক ঘোষণায় বলেন, “ভারতে আসন্ন বাণিজ্য আলোচনা পিছিয়ে দিচ্ছি আমরা।”

এনডিটিভি জানায়, গত সপ্তাহে নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত জি-২০ সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক এড়িয়ে গেছেন।

পাঁচ দিনের সম্মেলনের ফাঁকে ট্রুডোর সঙ্গে কেবল অনানুষ্ঠানিকভাবে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎ করেন মোদী। বিষয়টি কানাডার প্রতি ভারতের অবজ্ঞা বলেই মনে করেছেন অনেকে।

জি-২০ সম্মেলনের পরই ভারতের সঙ্গে কানাডার প্রতিনিধিদলের বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আসন্ন আলোচনা পেছানোর ঘটনায় দুই দেশের উত্তেজনাপূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্কের প্রতিফলন ঘটেছে।

ট্রুডোর সরকার আলোচনা পেছানোর কারণ না জানালেও বিশ্লেষকদের ধারণা, কানাডায় খালিস্তানপন্থিদের কার্যক্রম নিয়ে দেশটিকে কড়া বার্তা দিয়েছে ভারত।

ভারতের পাঞ্জাবের পর কানাডাতেই জনসংখ্যার একটা বড় অংশ হচ্ছে শিখ।

তারা পৃথক খালিস্তান রাষ্ট্রের দাবিতে শিখদের শুরু করা আন্দোলনে অনুপ্রাণিত। কানাডায় এই খালিস্তানিরা সক্রিয় হয়ে উঠছে। কানাডার ভারতীয় দূতাবাসকে নিশানা করা হচ্ছে। সেখানে খালিস্তানিদের বেশ কয়েকটি বিক্ষোভের ঘটনায় বিরক্ত হয়েছে ভারত।

কয়েক দিন আগেই বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছিলেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর। তিনি বলেছিলেন, ভোট ব্যাঙ্কের কথা মাথায় রেখে কানাডা যেভাবে খালিস্তানিদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এর প্রভাব পড়েছে ভারতের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে।

২০১০ সাল থেকেই ভারত ও কানাডার মধ্যে বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনা চলছে। গত বছর আনুষ্ঠানিকভাবে এই আলোচনা আবার শুরু হয়। মাত্র চার মাস আগেই চলতি বছরের মধ্যে মুক্ত বাণিজ্য নিয়ে একটি চুক্তি করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল দু’দেশ।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)