ছাঁটাই চলছেই: এবার স্ন্যাপের ১০ শতাংশ

ছাঁটাই হতে যাওয়া কর্মীদের সামগ্রিক ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ বাবদ সাড়ে সাত কোটি ডলার পর্যন্ত খরচের পরিকল্পনা করেছে স্ন্যাপ।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Feb 2024, 08:49 AM
Updated : 6 Feb 2024, 08:49 AM

ডিজিটাল বিজ্ঞাপনী বাজারের সাম্প্রতিক মন্দার সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে না পেরে প্রায় ১০ শতাংশ কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছে মেসেজিং সেবা স্ন্যাপচ্যাটের মালিক কোম্পানি স্ন্যাপ।

২০২৩ সালের শুরুতে কোম্পানিটির মোট কর্মী ছিল প্রায় পাঁচ হাজার তিনশ। এর আগে ২০২২ সালে ২০ শতাংশ কর্মী ছাঁটাইয়ের পর ২০২৩ সালেও তিন শতাংশ কর্মীকে অব্যাহতি দিয়েছিল স্ন্যাপ।

এদিকে, নিজেদের মূল সোশাল নেটওয়ার্কিং পণ্যগুলোর বিস্তার ছড়াতেও ব্যর্থ স্ন্যাপ। কোম্পানিটির এআর স্মার্টগ্লাস কখনোই মূলধারার বাজারে জায়গা করে নিতে পারে পারেনি। এমনকি সেলফি ড্রোন পিক্সি’র মতো হার্ডওয়্যার প্রকল্পও উন্মোচনের কয়েক মাসের মধ্যেই বন্ধ করে দিয়েছে কোম্পানিটি।

স্ন্যাপচ্যাটের সহায়ক পণ্য, যেমন টিকটক ধাঁচের ‘স্পটলাইট’ ও গ্রাহক সেবা ‘স্ন্যাপচ্যাট প্লাস’-এও কোম্পানির প্রত্যাশা মতো অগ্রগতি দেখা যায়নি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোয় অন্যান্য প্রযুক্তি ও গণমাধ্যম কোম্পানির মতো একই চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে স্ন্যাপ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য চ্যালেঞ্জগুলো হল ‘ডুবতে থাকা’ বিজ্ঞাপনী বাজার ও আইওএস-এ গ্রাহকদের ট্র্যাক করার বিষয়ে অ্যাপলের বিধিনিষেধ।

২০২৩ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে স্ন্যাপের আয় বাড়লেও এর আগের দুই প্রান্তিকে লোকসান গুনেছে কোম্পানিটি। আর ৬ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ মঙ্গলবার বিকেলে নিজেদের চতুর্থ প্রান্তিকের হিসেব প্রকাশ করছে কোম্পানিটি।

এ ছাঁটাইযজ্ঞে কোম্পানির কোন অংশে প্রভাব পড়বে, তা বলেনি স্ন্যাপ। তবে, কোম্পানিটি বলেছে, এ ছাঁটাইয়ের মানে ‘নিজেদের ব্যবসাকে সেরা অবস্থানে নিয়ে যাওয়া ও ভবিষ্যতে নিজেদের ব্যবসার বিস্তৃত ঘটানোর প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ নিশ্চিত করা কোম্পানির সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার’।

ছাঁটাই হতে যাওয়া কর্মীদের সামগ্রিক ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ বাবদ সাড়ে সাত কোটি ডলার পর্যন্ত খরচের পরিকল্পনা করেছে কোম্পানিটি।

২০২৪ সালের জন্য বেশ কিছু উচ্চাভিলাষী লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছেন স্ন্যাপের সিইও ইভান স্পিগেল। কোম্পানিটি আশা করছে, তাদের দৈনিক ব্যবহারকারী সংখ্যা প্রায় ১৭ শতাংশ বাড়িয়ে নেওয়ার পাশাপাশি বিজ্ঞাপন থেকেও আয় বাড়তে পারে ২০ শতাংশ। এমনকি স্ন্যাপচ্যাট প্লাসের গ্রাহক সংখ্যাও দ্বিগুণ করার লক্ষ্য নিয়েছে কোম্পানিটি। বর্তমানে সেবাটির গ্রাহক সংখ্যা ৭০ লাখের মতো।

তবে, অর্থ খরচ করেও নিজেদের বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ লক্ষমাত্রা পূরণে ক্রমাগত ব্যর্থ হয়েছে কোম্পানিটি।

“কোম্পানিতে শ্রেণিবিন্যাস কমিয়ে আনতে আমরা নিজেদের দলকে নতুন করে ঢেলে সাজাচ্ছি। এমনকি কোম্পানির বিভিন্ন দল থেকে বিদায় নিতে যাওয়া সদস্যদেরকে সহযোগিতা করার বিষয়টিতেও মনযোগ দিচ্ছি আমরা। স্ন্যাপে তাদের কঠোর পরিশ্রম ও অবদান রাখার জন্য আমরা খুবই কৃতজ্ঞ,” প্রযুক্তি সাইট ভার্জকে পাঠানো ইমেইল বার্তায় বলেন স্ন্যাপের মুখপাত্র ফেরিন জে।