উইন্ডোজে অডিও রেকর্ড করবেন যেভাবে

অ্যাপটি ব্যবহার করে সহজেই অডিও রেকর্ড করতে পারেন। ‘ট্রিমিং’ ও অডিও ট্র্যাক ‘এক্সপোর্টিং’-এর মতো বেশ কিছু মৌলিক ফিচারও ব্যবহার করা যাবে এতে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Oct 2022, 09:38 AM
Updated : 1 Oct 2022, 09:38 AM

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে যে অডিও রেকর্ড করা যায়, এ বিষয়টি হয়তো অনেকেই জানেন না। তবে, উইন্ডোজ ১০ ও ১১, দুটো অপারেটিং সিস্টেমেই রয়েছে অডিও রেকর্ডের সুবিধা।

একটি পডকাস্ট, সাক্ষাৎকার, বন্ধুর বার্তা বা নিজের জন্য নোট, ব্যবহারকারী যাই রেকর্ড করুন না কেন, উইন্ডোজ ১০-এ অডিও রেকর্ড করা একদম সহজ!

বেশ কয়েকটি ‘থার্ড-পার্টি’ অ্যাপের মাধ্যমেও অডিও রেকর্ড করতে পারবেন ব্যবহারকারী। তবে, উইন্ডোজ ১১-তে প্রি-ইনস্টল করা থাকে একটি ‘ভয়েস রেকর্ডার’ অ্যাপ। উইন্ডোজ ১০-এ এটি ভয়েস রেকর্ডার নামে থাকলেও উইন্ডোজ ১১-তে আসা অ্যাপটির নাম ‘সাউন্ড রেকর্ডার’, যা বিনামূল্যেই মিলছে মাইক্রোসফট স্টোরে।

ব্যবহারকারী অ্যাপটি ব্যবহার করে সহজেই অডিও রেকর্ড করতে পারেন। এটি ডাউনলোডেরও কোনো প্রয়োজন নেই। ‘ট্রিমিং’ ও অডিও ট্র্যাক ‘এক্সপোর্টিং’-এর মতো বেশ কিছু মৌলিক ফিচারও ব্যবহার করা যাবে এতে।

বিষয়টি সংক্ষেপে বর্ণনা করেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ। আসুন দেখে নেই, কীভাবে নিজের পছন্দের অডিও রেকর্ড করা সম্ভব-

উইন্ডোজ ১০-এর ক্ষেত্রে

ভয়েস রেকর্ডারে প্রবেশ করুন। সার্চ বক্সে টাইপ করলেই চলে আসবে এটি। কোনো কারণে না এলে মাইক্রোসফট স্টোর থেকে এটি বিনামূল্যেই ডাউনলোড করা যাবে।

রেকর্ডিং শুরু করতে মাইক্রোফোন বাটন চাপুন। পরবর্তীতে ‘স্টপ’ বাটনে পরিণত হবে এটি।

কিছুক্ষণের জন্য রেকর্ডিং থামাতে ‘পজ’ বাটনে চাপুন; আবার চাপ দিয়ে রেকর্ড পুনরায় চালু করতে পারবেন।

রেকর্ডিং শেষ করতে স্টপ বাটন চাপুন।

স্ক্রিনের বামপাশে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই চলে আসবে ওই রেকর্ডিং। ‘রিনেইম’ বা ফাইল শেয়ার করতে রাইট ক্লিক করুন।

উইন্ডোজ ১১-এর ক্ষেত্রে

উইন্ডোজ ১১-এর সাউন্ড রেকর্ডার অ্যাপ কিছুটা উন্নত। হোমস্ক্রিন থেকে মাইক্রোফোন ও ‘প্লেব্যাক স্পিড’ পাল্টানোর সক্ষমতাসহ বেশ কিছু নতুন ফিচার যোগ হয়েছে এতে।

সাউন্ড রেকর্ডারে প্রবেশ করুন। সার্চ বক্সে টাইপ করলেই এটি চলে আসবে। কোনো কারণে না এলে মাইক্রোসফট স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাবে এটি।

রেকর্ডিং শুরু করতে বড় লাল রংয়ের বাটন বা ‘কন্ট্রোল + ‘আর’ চাপুন। পরবর্তীতে, এটি ‘পজ’ বাটনে পরিণত হবে।

রেকর্ডিং কিছুক্ষণের জন্য থামাতে ‘পজ’ বাটন চাপুন; আবার চাপ দিয়ে রেকর্ড পুনরায় চালু করুন।

স্ক্রিনের বামপাশে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই চলে আসবে ওই রেকর্ডিং। ‘রিনেইম’ বা ফাইল শেয়ার করতে রাইট ক্লিক করুন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক