এবারের ডব্লিউডব্লিউডিসি আয়োজনে কী দেখাবে অ্যাপল?

এবারের আয়োজনে ‘মধ্যমণি’ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে অ্যাপলের বহুল প্রতীক্ষিত মিক্সড রিয়ালিটি হেডসেট।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 June 2023, 01:53 PM
Updated : 4 June 2023, 01:53 PM

অ্যাপ নির্মাতাদের বিশেষ সম্মেলন ‘ওয়ার্ল্ডওয়াইড ডেভেলপার্স কনফারেন্স’ আয়োজনের দ্বারপ্রান্তে অ্যাপল। আর এতে নিজস্ব সকল প্ল্যাটফর্মের জন্য বিভিন্ন আপডেট প্রকাশ করে থাকে মার্কিন এই টেক জায়ান্ট।

এই আয়োজনে অ্যাপলকে মূলত নিজস্ব সকল পণ্যে বিভিন্ন নতুন সফটওয়্যার আপডেট আনতে দেখা যায়। এর মধ্যে রয়েছে আইওএস-এর মতো কোম্পানির মূল অপারেটিং সিস্টেমগুলোর সর্বশেষ সংস্করণ প্রকাশ।

তবে এই বছর সিস্টেম আপডেট নয়, বরং অ্যাপলের একেবারে নতুন পণ্য নিয়ে বেশি আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। বেশ কয়েক বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে  এবারের আয়োজনে কোম্পানির নতুন হেডসেট দেখানোর সম্ভাবনাকে এর কারণ হিসেবে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

তবে, এখানেই শেষ নয়। সোমবার শুরু হতে যাওয়া এই আয়োজনে আর কী ধরনের পণ্য থাকতে পারে, সেটির বিস্তারিত এখানে দেখে নেওয়া যাক-

হেডসেট

এবারের আয়োজনে ‘মধ্যমণি’ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে অ্যাপলের বহুল প্রতীক্ষিত মিক্সড রিয়ালিটি হেডসেট। ইন্ডিপেন্ডেন্টের অনুমান বলছে, ডব্লিউডব্লিউডিসি’র কি-নোট চলাকালীন ডিভাইসটি নিয়ে একটা ঘোষণা আসতে পারে।

নতুন ম্যাক

নামের বিষয়টি বিবেচনায় নিলে ডব্লিউডব্লিউডিসি সফটওয়্যার আয়োজন হিসেবে পরিচিতি পেলেও এতে কখনও কখনও হার্ডওয়্যারও উন্মোচিত হয়। এগুলো সাধারণত সেইসব পেশাদার কেন্দ্রিক, উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন হার্ডওয়্যার হয়ে থাকে, যা ডেভেলপাররা দেখতে পছন্দ করেন।

এবারের আয়োজনে বেশ কিছু সংখ্যক নতুন ম্যাক উন্মোচনের সম্ভাবনার কথা শোনা গেছে।

বিভিন্ন প্রতিবেদনে থেকে ইঙ্গিত মিলেছে, অ্যাপল নতুন ১৫ ইঞ্চির ম্যাকবুক এয়ার নিয়ে কাজ করছে। পাশাপাশি, আয়োজনে ‘ম্যাক স্টুডিও’র আপডেট সংস্করণ ও ১৩ ইঞ্চির ম্যাকবুক এয়ার ও প্রো উন্মোচনের সম্ভাবনাও রয়েছে। আর এই সকল ডিভাইসে থাকতে পারে অ্যাপলের নতুন সিলিকন চিপ, যা সম্ভবত এম২ চিপের নতুন সংস্করণ।

এই আয়োজনের ‘ম্যাক প্রো’ ডিভাইসের উপস্থিতি নাও দেখা যেতে পারে। এই ডিভাইসে অ্যাপল নিজেদের সিলিকন প্রসেসর আপডেটের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা এখনও আসেনি। অ্যাপল ইঙ্গিত না দিলে অনেকেই হয়তো ধরে নিতেন এর কার্যক্রম একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছে।

এবারের আয়োজনে ম্যাক প্রো ডিভাইসের দেখা মিলবে, এমন কোনো খবরও শোনা যায়নি। তবে, দর্শকদের চমক দেখানোর লক্ষ্যে আয়োজনে ডিভাইসটির ঝলক দেখানোকে বড় সুযোগ হিসেবে দেখছে ইন্ডিপেন্ডেন্ট। বিশেষ করে, বিভিন্ন মিক্সড রিয়ালিটি অ্যাপ তৈরির বেলায় ডেভেলপারদের ক্ষমতাসম্পন্ন কম্পিউটারের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি বিবেচনায় নিলে।

আইওএস ১৭

সাধারণত নতুন সংস্করণের আইওএস ডব্লিউডব্লিউডিসি’র সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা হিসেবে বিবেচিত হলেও এই বছর সম্ভবত হেডসেট ওই জায়গাটি দখল করবে। তাতেও, এ বছরের আয়োজনে বেশ কয়েকটি বড় পরিবর্তনের প্রত্যাশা রয়েছে।

এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে ‘লক স্ক্রিন’ ব্যবস্থায় পরিবর্তন। গত বছর প্রকাশিত ‘উইজেট’-এর মতো একই রকম সংযোজন হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে এটি।

তবে, সবচেয়ে চমকপ্রদ খবর উঠে আসে মার্কিন বাণিজ্য প্রকাশনা ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে, যেখানে আইফোনকে ‘হোম ডিস্প্লে’তে রূপান্তরিত করা এক ফিচারের উল্লেখ রয়েছে।

এদিকে, ‘ওয়ালেট’ ও ‘কনট্রোল সেন্টার’-এর মতো ফিচারে বড় আপগ্রেডের সম্ভাবনার বিষয়টিও উঠে এসেছে বেশ কিছু প্রতিবেদনে। তবে, এগুলো কী ধরনের পরিবর্তন হতে পারে, ওই বিষয়টি পরিষ্কার নয়।

নতুন আপডেটে একটি জার্নাল ও ব্যবহারকারীর মেজাজ ট্র্যাক করা টুলের সহায়তায় বিভিন্ন ‘মানসিক সুস্থতা’ সংশ্লিষ্ট ফিচার আনার কথাও শোনা গেছে, যেগুলো পরবর্তীতে কোম্পানির ‘হেলথ’ অ্যাপের সঙ্গে সমন্বিত হবে। আর আইপ্যাডে উন্মোচিত হতে পারে হেলথ অ্যাপ নিজেই।

ওয়াচওএস ১০

অ্যাপল ওয়াচেও বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য আপগ্রেড আসতে পারে। ইঙ্গিত মিলেছে, এর ফলে ঘড়ির মৌলিক কার্যক্রমেও বদল আসতে পারে।

সুপরিচিত অ্যাপল বিশ্লেষক মার্ক গারম্যান বলেন, এই শ্রেণির পণ্যের বেলায় মূল খবর হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে সেইসব উইজেটে নতুন করে মনযোগ দেওয়া, যেগুলো এরইমধ্যে আইফোনে আছে। তিনি আরও যোগ করেন, এগুলো অ্যাপল ওয়াচের ইন্টারফেসের ‘কেন্দ্রীয় অংশ’ হয়ে উঠবে।

অন্যান্য সফটওয়্যার আপডেট

ডব্লিউডব্লিউডিসি সম্মেলনে প্রতিটি অ্যাপল পণ্যের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেমে আপডেট আসে। এই সফটওয়্যার আপডেটের তালিকায় রয়েছে ম্যাক থেকে শুরু করে টিভি এমনকি হোমপডও।

তবে এইসব অপারেটিং সিস্টেমে কী ধরনের পরিবর্তন আসতে পারে, সেটি নিয়ে তেমন কোনো তথ্য ফাঁস হয়নি। আর সাম্প্রতিক বছরগুলোয় অন্তত কয়েকটি প্ল্যাটফর্মে এই আপডেট আসার গতিতে ভাটা পড়েছে। উদাহরণ হিসেবে ধরা যায়, গত বছর টিভিওএস আপডেটে কেবল গেইম কন্ট্রোলারের সুবিধা যুক্ত হয়েছে।

এবারের আয়োজনে বেশিরভাগ কার্যক্রম হেডসেটের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে পরিচালিত হচ্ছে বলে ধারণা প্রকাশ করেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট এনগ্যাজেট। আর প্রকৌশলদেরও হয়তো এই বিষয়ে অবগত করেছে অ্যাপল। এর সম্ভাব্য দুটি মানে দাঁড়ায়, উপাদানের ঘাটতির কারণে এবারের আয়োজনে আগের চেয়ে কম আপডেট দেখা যেতে পারে বা আসন্ন হেডসেটের কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন আপডেট তৈরি হতে পারে।

চমক

ডব্লিউডব্লিউডিসি’তে সাধারণত কয়েকটি চমকও দেখা যায়। এমনকি সেগুলো ছোট বা কম গুরুত্বপূর্ণ হলেও। তবে, এবারের আয়োজনে নতুন চমক দেখার সম্ভাবনাও কম। পুরো আয়োজনে অ্যাপল হয়তো নিজেদের হেডসেট বিশ্লেষণ করবে, এমন কথা শোনা গেলেও আগে ফাঁস হয়নি বা পুরোপুরি নতুন পণ্যের ঘোষণা আসার সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না।