দালান বানাবে উড়ুক্কু থ্রিডি প্রিন্টার ড্রোন

উঁচু দালানের ওপরে বা মানুষের জন্য বিপজ্জনক এলাকায় উৎপাদন, নির্মাণ ও সংস্কার কাজে এ প্রযুক্তি ব্যবহারের সম্ভাবনা দেখছেন এর উদ্ভাবকরা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Sept 2022, 11:10 AM
Updated : 26 Sept 2022, 11:10 AM

দালানের নির্মাণ ও সংস্কার কাজে উড়ুক্কু থ্রিডি প্রিন্টার ড্রোন ব্যবহারের অভিনব প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন ইউনিভার্সিটি অফ বাথ-এর একদল গবেষক।

প্রকৃতিতে মৌমাছিরা যেভাবে দলবেঁধে মৌচাক নির্মাণ করে, থ্রিডি প্রিন্টার ড্রোনগুলোও একই কৌশল অবলম্বন করবে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

উঁচু দালানের ওপরে বা মানুষের জন্য বিপজ্জনক এলাকায় উৎপাদন, নির্মাণ ও সংস্কার কাজে এ প্রযুক্তি ব্যবহারের সম্ভাবনা দেখছেন এর উদ্ভাবকরা। এ প্রযুক্তি নির্মাণ কাজের খরচ কমিয়ে সার্বিক প্রক্রিয়াকে আরও নিরাপদ করে তুলবে বলে তাদের প্রত্যাশা। দলবেঁধে, কিন্তু স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করে থ্রিডি প্রিন্টারবাহী ‘এরিয়াল অ্যাডিটিভ ম্যানুফাকচারিং (এরিয়াল-এএম)’ ড্রোনগুলো। কাজের সমন্বয়ের জন্য সবগুলো ড্রোন নির্ভর করে একই ব্লুপ্রিন্টের ওপর।

বিবিসি জানিয়েছে, উড়ন্ত অবস্থায় ড্রোনগুলো সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় হলেও পুরো প্রক্রিয়া ও কাজের অগ্রগতির ওপর নজর রাখবেন একজন মানুষ; প্রয়োজনে তিনি ড্রোনগুলোর কাজে হস্তক্ষেপও করতে পারবেন।

সম্প্রতি বিজ্ঞান সাময়িকী নেচারে নিজেদের গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন উদ্ভাবকরা। প্রতিবেদনের মূল লেখক এবং ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ডনের এরিয়াল রোবটিক্স ল্যাবরেটরির অধ্যাপক মিরকো কোভাস দাবি করছেন, তার দল প্রমাণ করে দিয়েছে যে ড্রোন প্রযুক্তি দিয়ে স্বাধীনভাবে এবং দলবেঁধে ‘অন্তত ল্যাবরেটরিতে হলেও’ দালান নির্মাণ ও সংস্কারের কাজ করা সম্ভব।

নিজেদের তত্ত্ব প্রমাণ করতে ল্যাবরেটরিতে ড্রোনগুলোকে সিমেন্টের মত চারটি মিশ্রণ সরবরাহ করেছিলেন গবেষকরা। সে মিশ্রণ দিয়েই নির্মাণ কাজে সক্ষমতার প্রমাণ দেখিয়েছে এরা।

বিবিসি জানিয়েছে, ড্রোনগুলো নিজেদের তৈরি নির্মাণ উপাদানের জ্যামিতিক নকশা দালানের বিভিন্ন অংশের সঙ্গে মিলিয়ে দেখেছে এবং প্রয়োজনে তাৎক্ষণিকভাবে কার্যপ্রক্রিয়ায় পরিবর্তন এনেছে।

গবেষকরা বলছেন, থ্রিডি প্রিন্টার ড্রোনের তৈরি উপাদানগুলোর মূল নকশার সঙ্গে পর্থক্য ছিল পাঁচ মিলিমিটারের মধ্যে। প্রিন্টিং প্রক্রিয়ার ‘কারিগরি সক্ষমতা’ নিশ্চিত করতেই উড়ুক্কু থ্রিডি প্রিন্টারের তৈরি কাঠামোগুলোর ক্ষেত্রে সঠিক মাপের প্রয়োজন ছিল।

নতুন প্রযুক্তির সক্ষমতার প্রমাণ দিতে পলিইউরিথেন ভিত্তিক ফোমের মত নির্মাণ উপাদান দিয়ে ৭২ স্তরের এবং ২.০৫ মিটার উচ্চতার একটি সিলিন্ডার এবং সিমেন্টের মত একটি উপাদান দিয়ে ২৮ স্তরের সাত ইঞ্চি উচ্চতার সিলিন্ডার নির্মাণ করে দেখিয়েছে ড্রোনগুলো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক