বিটকয়েনে টিকেটের দাম নেবে অক্সফোর্ড সিটি ফুটবল ক্লাব

বিটকয়েনে লেনদেন প্রক্রিয়া চালু করতে আইল অফ ম্যান ভিত্তিক কোম্পানি কয়েনকর্নারের সঙ্গে কয়েক বছর মেয়াদী চুক্তি করেছে ক্লাবটি।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 August 2022, 12:33 AM
Updated : 3 August 2022, 12:33 AM

ম্যাচের দিন বিটকয়েনে টিকেট, খাবার ও পানীয়ের দাম নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড সিটি ফুটবল ক্লাব।

নিজেদের ‘র চার্জিং স্টেডিয়ামে’ আয়োজিত ম্যাচগুলোর বেলায় ব্যাংক কার্ড ও নগদ অর্থের পাশাপাশি বিকল্প হিসেবে ক্রিপ্টো মুদ্রায় লেনদেন করবে অক্সফোর্ড সিটি।

বিবিসি জানিয়েছে, শনিবার অনুষ্ঠিতব্য ‘ন্যাশনাল লিগ সাউথ’-এর প্রথম ম্যাচে ইস্টবোর্ন বরো’র বিপরীতে ম্যাচে লেনদেনের মাধ্যমে হিসেবে বিটকয়েন নেবে ক্লাবটি।

যুক্তরাজ্যের ক্লাব ফুটবল জগতে বিটকয়েনে দাম মেটানোর বিষয়টি ‘স্বাভাবিক বিষয়ে’ পরিণত হওয়ার আশা করছেন ক্লাবের পরিচালক।

বিবিসি জানিয়েছে, বিটকয়েনে লেনদেন প্রক্রিয়া চালু করতে আইল অফ ম্যান-ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘কয়েনকর্নার’-এর সঙ্গে কয়েক বছর মেয়াদী চুক্তি করেছে ক্লাবটি। ক্লাবের জার্সির পেছনে স্পন্সর হিসেবেও নাম থাকবে কোম্পানিটির।

বিটকয়েন লেনদেন সহজ করার লক্ষ্যে ‘দ্য বোল্ট কার্ড’-এর প্রচলন করেছে কয়েনকর্নার। কার্ডটিকে বিটকয়েনের জন্য বিশ্বের প্রথম ‘কনট্যাক্টলেস কার্ড’ হিসেবে দাবি করে কয়েনকর্নার।

এ প্রসঙ্গে অক্সফোর্ড সিটির ফুটবল বিষয়ক পরিচালক জাস্টিন মেরিট বলেন, “অক্সফোর্ড সিটি এফসি যেন স্বনির্ভর ক্লাব হিসেবে কার্যক্রম চালু রাখতে পারে সে জন্য নতুন প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনকে বরণ করে নেওয়া ক্লাবের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ অংশ।”

“নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হওয়া মানুষের জন্য বাধ্যতামূলক নয়। কিন্তু আমরা মনে করি, সময়ের সঙ্গে ইংলিশ ফুটবলে বিটকয়েনে মূল্য পরিশোধ একটি স্বাভাবিক বিষয়ে পরিণত হবে।”

অক্সফোর্ড সিটির সঙ্গে নতুন চুক্তি প্রসঙ্গে কয়েনকর্নার সিইও ড্যানিয়েল স্কট বলেন, “অক্সফোর্ড সিটি এফসির মতো আমাদের পেশাদারী কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রে রয়েছে উদ্ভাবন এবং ভবিষ্যৎ চিন্তা।”

“জাতীয় লিগে প্রথম হিসেবে একটি ক্লাবকে বিটকয়েনে লেনদেন প্রক্রিয়া গ্রহণ করতে দেখা সত্যিই আনন্দের। আমরা মনে করি যে, যুক্তরাজ্য জুড়ে এটি লিগের বাইরে এবং ফুটবল লিগ ডিভিশনে ডিজিটাল মুদ্রাকে ফুটবল ভক্তদের জন্য স্বাভাবিক বিষয় হিসেবে প্রতিষ্ঠা করাবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক