কৃষ্ণার শূন্যতা ঋতুপর্ণাকে দিয়ে পুরণের ছক টিটুর

সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে সাবিনা খাতুনের সঙ্গে ঋতুপর্ণাকে রেখে আক্রমণভাগ সাজানোর পরিকল্পনা কোচ সাইফুল বারী টিটুর।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2023, 12:44 PM
Updated : 30 Nov 2023, 12:44 PM

আক্রমণভাগে সাবিনা-কৃষ্ণা জুটির সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন নেই। কিন্তু চোটের থাবায় সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে দুই প্রীতি ম্যাচে কৃষ্ণা রানী সরকারকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। নির্ভরযোগ্য এই ফরোয়ার্ডের শূন্যতা অপেক্ষাকৃত তরুণ ঋতুপর্ণা চাকমাকে দিয়ে পূরণ করতে চান বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের কোচ সাইফুল বারী টিটু।

সাবিনা খাতুনের সঙ্গে ঋতুপর্ণার জুটি কতটা সফল হবে, তার কিছুটা আঁচ পাওয়া যাবে শুক্রবার। এদিন কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে বেলা ৪টায় মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর। দুই দলের দ্বিতীয় ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আগামী ৪ ডিসেম্বর।

প্রথম ম্যাচ সামনে রেখে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে টিটু জানালেন, অদ্ভুত কারণে কৃষ্ণার চোট পাওয়ার কথা। জাতীয় দলের হয়ে ১১ গোল করা এই ফরোয়ার্ডকে পুরোপুরি সেরে ওঠার সুযোগ করে দিতেই তাকে রাখা হয়নি বলেও জানালেন তিনি।

“কৃষ্ণার যে চোট, সেটা খুবই অস্বাভাবিক। সেটা ফুটওয়্যারের কারণে (বুট) হতে পারে। মেটাটারসালের মাঝখানে যে নার্ভ আছে, সেটা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। নেপালের বিপক্ষে ঢাকায় খেলায় সময় যে ওষুধ নিয়েছিল, সেটা হয়তো সাময়িকভাবে ব্যথা কমিয়েছিল, কিন্তু ওই ওষুধ নেওয়া ঠিক হয়নি।”

“আমরা ফ্রেশ কৃষ্ণাকে চাই। দলে ওর জায়গা নিয়ে তো প্রশ্ন নেই। ও গ্রেট প্লেয়ার। ওর কামব্যাকের জন্যই এই দুই ম্যাচে ওকে রাখছি না। আমরা চাইছি ও একবারে সুস্থ হয়ে ফিরুক। ও ভালোভাবে ফিরলে তো দলের জন্য অবশ্যই ভাল।“

ঋতুপর্ণা মূলত মিডফিল্ডার হলেও গোল করতে পারদর্শী। গত সাফ চ্যাম্পিয়শিপে পাকিস্তান ও ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচে গোল পেয়েছিলেন ১৯ বছর বয়সী এই ফুটবলার। অধিনায়ক সাবিনা আশাবাদী, কৃষ্ণার শূন্যতা পূরণ করতে পারবেন ঋতুপর্ণা।

“প্রথমত কৃষ্ণার যে ইনজুরি, সেটা থেকে ওর কামব্যক করা সবচেয়ে জরুরি। অন দা ফিল্ড ও অবশ্যই দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। ও থাকলে ভাল হতো। যেহেতু পাচ্ছি না, কিছু করার নেই। কৃষ্ণার জায়গায় ঋতুকে দিয়ে কোচ চেষ্টা করছেন। আমার মনে হয়, ঋতু ওর জায়গা পূরণ করতে পারবে।”

২০১৭ সালে প্রথম এবং সবশেষ সিঙ্গাপুরের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। প্রায় সাত বছর আগের সেই প্রীতি ম্যাচে ৩-০ গোলে হেরেছিলেন সাবিনারা।