২০২৩ সালে খেলোয়াড় কেনা-বেচায় খরচ রেকর্ড ৯৬৩ কোটি ডলার

২০২২ সালের তুলনায় গত বছর খেলোয়াড়দের দলবদলে খরচ বেড়েছে প্রায় ৫০ শতাংশ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Jan 2024, 04:13 PM
Updated : 30 Jan 2024, 04:13 PM

দলবদলের উইন্ডোগুলোতে গত বছর ব্যস্ত সময় কাটিয়েছে ফুটবল বিশ্বের ক্লাবগুলো। যার ফলে ২০২৩ সালে সব ক্লাব মিলিয়ে খেলোয়াড় কেনা-বেচায় খরচ হয়েছে আকাশচুম্বী। এতে ভেঙে গিয়েছে অতীতের সব রেকর্ড।

বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্তা সংস্থা ফিফা মঙ্গলবার প্রকাশ করে গ্লোবাল ট্রান্সফার রিপোর্ট। যেখানে উঠে আসে, ২০২৩ সালে খেলোয়াড় কেনা-বেচায় ক্লাবগুলোর খরচ হয়েছে রেকর্ড ৯৬৩ কোটি ডলার। যা ২০২২ সালের তুলনায় প্রায় ৫০ শতাংশ বেশি।

কোভিড-১৯ মহামারীর প্রাদুর্ভাবের কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে ক্লাবগুলোর অর্থনৈতিক অবস্থার ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ে। যার ফলে ওই দুই বছর কমে যায় খেলোয়াড় কেনা-বেচার খরচ। কিন্তু এরপর থেকে এই ব্যয় কেবল বেড়েই চলছে। নির্দিষ্ট করে বললে, ২০২২ সালের তুলনায় গত বছর এই খাতে ৪৮.১ শতাংশ বেশি খরচ হয়েছে।

খেলোয়াড় কেনা-বেচায় খরচের আগের রেকর্ড হয়েছিল ২০১৯ সালে। তার চেয়ে ২০০ কোটি ডলারের বেশি খরচ হয়েছে গত বছর। ২০২৩ সালে সবচেয়ে বেশি ২৯৬ কোটি ডলার ব্যয় করেছে ইংলিশ ক্লাবগুলো।

খরচের এই তালিকায় এরপরই সৌদি আরবের ক্লাবগুলো। গত বছর আল নাস্‌র পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে চুক্তি করার পর থেকে সৌদি প্রো লিগে যোগ দিয়েছেন ইউরোপিয়ান দলগুলোর বেশ কয়েকজন তারকা খেলোয়াড়।

গত বছর ছেলেদের ফুটবলে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে রেয়াল মাদ্রিদে জুড বেলিংহ্যাম, বেনফিকা থেকে চেলসিতে এনসো ফের্নান্দেস এবং টটেনহ্যাম হটস্পার থেকে বায়ার্ন মিউনিখে হ্যারি কেইনের ট্রান্সফার ছিল উল্লেখযোগ্য।

২০২২ সালের তুলনায় গত বছর মেয়েদের ফুটবলে ২০ শতাংশ বেশি খেলোয়াড় দলবদল হয়েছে। যেখানে জড়িত ক্লাবের সংখ্যা ২০২২ সালে ৫০৭ থেকে বেড়ে ২০২৩ সালে হয়েছে ৬২৩।

ফিফা জানিয়েছে, গত বছর রেকর্ড ১৩১টি অ্যাসোসিয়েশন ১ হাজার ৮৮৮ নারী ট্রান্সফারে জড়িত ছিল। যেখানে বার্ষিক ব্যয় হয়েছে ৬১ লাখ ডলার, এটাও রেকর্ড। ২০২২ সালের তুলনায় যা ৮৪.২ শতাংশ বেশি।