সৌদি ফুটবলে না যাওয়ার কারণ জানালেন বের্নার্দো সিলভা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি ম্যানচেস্টার সিটি মিডফিল্ডার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2023, 12:19 PM
Updated : 24 Nov 2023, 12:19 PM

সবশেষ গ্রীষ্মে জোরেশোরেই বাতাসে ভাসছিল বের্নার্দো সিলভার ম্যানচেস্টার সিটি ছাড়ার গুঞ্জন। সেখানে উঠে এসেছিল সৌদি আরবের ক্লাবের নামও। তবে শেষ পর্যন্ত ঠিকানা বদল করেননি তিনি। পর্তুগিজ মিডফিল্ডার বললেন, ইউরোপের শীর্ষ পর্যায়ে খেলা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছার কারণেই তিনি সৌদি ফুটবলে যাননি।

২০২২ সালের গ্রীষ্মেও সিলভার ক্লাব ছাড়ার খবর এসেছিল। তবে এবার সেই সম্ভাবনা বেশ জোরাল ছিল। সিটির হয়ে ঐতিহাসিক ট্রেবল জয়ের পর তার দিকে নজর ছিল বার্সেলোনা, পিএসজির পাশাপাশি আল হিলালেরও।

তবে তাকে কোনোভাবেই ছাড়তে রাজি হয়নি সিটি। এরপর গত অগাস্টে ২৯ বছর বয়সী এই ফুটবলারের সঙ্গে ২০২৬ সাল পর্যন্ত চুক্তি নবায়ন করে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নরা।

এই বছরের শুরুতে সিলভার জাতীয় দলের সতীর্থ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো সৌদি ফুটবলে নাম লেখান। এরপর গ্রীষ্মে ইউরোপিয়ান ফুটবলের বেশ কয়েকজন তারকা তাকে সেখানে অনুসরণ করেন, যার মধ্যে আছেন নেইমার, করিম বেনজেমার মতো খেলোয়াড়রাও। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সিলভার সামনেও ছিল লোভনীয় অফার।

গত মৌসুমে সিটির হয়ে প্রিমিয়ার লিগ ও এফএ কাপ জেতার পাশাপাশি ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বাদ পান সিলভা। সিটিরও এই প্রতিযোগিতায় প্রথম শিরোপা এটি। সেই পথচলায় সেমি-ফাইনালে দুই লেগেই টুর্নামেন্টের সফলতম ক্লাব রেয়াল মাদ্রিদকে হারায় ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। এরপর ফাইনালে পেপ গুয়ার্দিওলার দল জেতে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে।

সম্প্রতি পর্তুগিজ টেলিভিশন চ্যানেল আরটিপিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সিলভা বলেছেন, সৌদির প্রস্তাব বিবেচনা করলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ভাবনা তার সিদ্ধান্তে প্রভাব রেখেছে।

“যদি বলি যে (সৌদি আরব নিয়ে) চিন্তা করিনি, তাহলে মিথ্যা বলা হবে। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে খেলার রোমাঞ্চ, সেমি-ফাইনালে (রেয়াল) মাদ্রিদের বিপক্ষে গোল করার পর (ইতিহাদ) স্টেডিয়ামে সমর্থকদের চিৎকার বা আমরা যখন ইন্টারের বিপক্ষে ফাইনাল জিতলাম, এসব আমি ছেড়ে দিতে চাইনি।”

সিলভার শৈশব কেটেছে পর্তুগালের ক্লাব বেনফিকায়, দলটির বয়সভিত্তিক দলে ১১ বছর খেললেও সিনিয়র দলের হয়ে মাত্র ৩টি ম্যাচ খেলেন তিনি। এরপর যোগ দেন মোনাকোতে। অবসর নেওয়ার আগে বেনফিকার হয়ে আরও একবার খেলার ইচ্ছা রয়েছে তার।