জার্মানিকেও হারিয়ে ফাইনালসের আশায় হাঙ্গেরি

তিন সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নে গড়া ‘গ্রুপ অব ডেথ’ থেকে শিরোপা লড়াইয়ে ওঠার সম্ভাবনায় হাঙ্গেরি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Sept 2022, 08:46 PM
Updated : 23 Sept 2022, 08:46 PM

আত্মবিশ্বাসী আর ভয়ডরহীন ফুটবলে আগেই নিজেদের জানান দেওয়া হাঙ্গেরি দেখাল নতুন চমক। তিন মাস আগে ১০ দিনের ব্যবধানে শক্তিশালী ইংল্যান্ডকে দুবার হারিয়ে দেওয়া দলটি ধরে রাখল তাদের বিস্ময়-যাত্রা। এবার আরেক ফেভারিট জার্মানিকে হারিয়ে তিন সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের মুত্যূকূপ থেকে উয়েফা নেশন্স লিগের ফাইনালসে জায়গা করে নেওয়ার পথে এগিয়ে গেল হাঙ্গেরি।

লাইপজিগের রেড বুল অ্যারেনায় শুক্রবার রাতে ‘এ’ লিগের তিন নম্বর গ্রুপের ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে হাঙ্গেরি। জার্মানির জালে একমাত্র গোলটি করেন এডাম সলোই।

পাঁচ ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে হাঙ্গেরি। দিনের আরেক ম্যাচে ইংল্যান্ডকে একই ব্যবধানে হারানো ইতালি ২ পয়েন্ট কম নিয়ে আছে দ্বিতীয় স্থানে।

আগামী বছরের শিরোপা লড়াইয়ের মঞ্চে জায়গা করে নেওয়ার মিশনে আগামী সোমবার মুখোমুখি হবে হাঙ্গেরি ও ইতালি।

একই সঙ্গে ঘরের মাঠে এই হারে শিরোপা লড়াইয়ে যাওয়ার আশা শেষ হয়ে গেল জার্মানির। ৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে তারা।

হাঙ্গেরির মাঠে প্রথম লেগে ম্যাচ শুরু হতেই গোল খেয়ে বসেছিল জার্মানি। এবার তেমন কিছু একটু দেরিতে হলো বটে, তবে ঠিকই পিছিয়ে পড়ল তারা।

ম্যাচের সপ্তদশ মিনিটে চমৎকার গোলে দলকে এগিয়ে নেন সলোই। কর্নার থেকে উড়ে বাসা বল দারুণ বুদ্ধিমত্তায় ফ্লিকে দূরের পোস্ট দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন বাসেল ফরোয়ার্ড।

পাল্টা জবাব দিতে চটজলদি ঘুরে দাঁড়ানোর যে মানসিকতার দরকার, প্রথমার্ধের বাকি সময়েও তা দেখাতে পারেনি জার্মানি। উল্টো ৩০তম মিনিটে আবারও গোল হজম করতে পারতো চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে ছয় গজ বক্সের মুখে বল পেয়ে ডানিয়েল গাজডাগ দুর্বল শট নিলে বেঁচে যায় জার্মানি।

বল দখলে আধিপত্য করা ফ্লিকের দল বিরতির আগে একটাই উল্লেখযোগ্য সুযোগ তৈরি করতে পারে। ৩৯তম মিনিটে টমাস মুলারের সেই হেড অবশ্য অনায়াসেই ধরে ফেলেন হাঙ্গেরি গোলরক্ষক।

বিরতির পর আক্রমণাত্মক শুরু করে জার্মানি। ৫১তম মিনিটে দারুণ সুযোগও পায় তারা। তবে ইলকাই গিনদোয়ানের পাস পেয়ে লেরয় সানের দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া শট কোনোমতে ঠেকান হাঙ্গেরি গোলরক্ষক।

দু্ই মিনিট পর জালে বল পাঠান জার্মানির ইয়োনাস হফমান; কিন্তু অফসাইডে ছিলেন তিনি। খানিক পর আবারও হাঙ্গেরির ডি-বক্সে বল, এবার গোলরক্ষক বরাবর শট নেন টিমো ভেরনার। বাড়ে জার্মানির হতাশা।

সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে জার্মানি। আরও বেশি সময় বল দখলে রেখে আক্রমণ করতে থাকে তারা। সেই তুলনায় তেমন সুযোগ অবশ্য তৈরি করতে পারেনি তারা।

৭২তম মিনিটে উল্টো ব্যবধান দ্বিগুণের ভালো সুযোগ পেয়ে যায় হাঙ্গেরি। তবে মার্টিন এডামের শট ঠেকিয়ে দলকে ম্যাচে রাখেন মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। কিন্তু প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর মতো যথেষ্ট কার্যকর হতে পারেননি সানে-মুলাররা।

Also Read: ইতালির বিপক্ষে হেরে ইংল্যান্ডের অবনমন

হাঙ্গেরির ফুটবল ইতিহাসে নতুন দিনের জানান দেওয়া দলটির অর্জনের খাতায় যোগ হয় আরেকটি স্মরণীয় জয়।

তাদের এই জাগরণের শুরু গত বছরের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ননশিপে। গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়লেও তিন ম্যাচেই খেলেছিল তারা সাহসী ফুটবল। অনেকটা সময় পর্তুগালকে আটকে রেখে শেষে দ্রুত তিন গোল খেয়ে হারে তারা। তবে পরের দুই রাউন্ডে রুখে দেয় ফ্রান্স ও জার্মানিকে।

আর এবার নেশন্স লিগে গত জুনে ইংল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারানোর পর হেরে যায় ইতালির মাঠে গিয়ে। পরের ম্যাচেই ১-১ গোলে রুখে দেয় জার্মানদের। তারপর ইংল্যান্ডের মাঠে ওই ৪-০ গোলের বিস্ময়কর জয়। আর এবার বধ করল জার্মানিকে।

শেষ ম্যাচে ইতালিকে রুখে দিতে পারলেই মিলে যাবে অবিস্মরণীয় ফল; তিন জায়ান্টকে পেছনে ফেলে হাঙ্গেরি উঠে যাবে চার দলের ফাইনালসে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক