লেভারকুজেনকেই লিগ চ্যাম্পিয়ন দেখছেন বায়ার্ন কিংবদন্তি

বায়ার্ন ছাড়া অন্য কোনো দল চ্যাম্পিয়ন হলে বুন্ডেসলিগার জন্যই তা ভালো, বলছেন বায়ার্নের সাবেক অধিনায়ক ফিলিপ লাম।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 March 2024, 06:38 AM
Updated : 29 March 2024, 06:38 AM

লিগের ম্যাচ বাকি আছে এখনও আট রাউন্ড। তবে পয়েন্ট তালিকায় তাকিয়ে লিগ শেষের সম্ভাব্য ছবিটা এখনই দেখতে পাচ্ছেন ফিলিপ লাম। বায়ার্ন মিউনিখ কিংবদন্তির মতে, বুন্ডেসলিগার শিরোপা এবার বায়ার লেভারকুজেনই জিতবে। তাতে খুব অখুশি নন সাবেক এই ডিফেন্ডার। বায়ার্ন ছাড়া অন্য কোনো দল ট্রফি জিতলে এই লিগের জন্যই তা ভালো হবে বলে মনে করেন বায়ার্নের সাবেক অধিনায়ক।

বুন্ডেসলিগার পয়েন্ট তালিকার যা অবস্থা, তাতে লামের সঙ্গে দ্বিমত করার লোক এই মুহূর্তে তেমন কেউ আছে বলে মনে হয় না। লেভারকুজেনের ইতিহাস গড়া এখন স্রেফ সময়ের ব্যাপার বলেই ধারণা করা যায়।

নিজেদের প্রায় ১২০ বছরের ইতিহাসে কখনোই লিগ শিরোপা জিততে পারেনি লেভারকুজেন। গত ২০ বছরে স্রেফ একবার রানার্স আপ হতে পেরেছে তারা। সেই দলটিই এবার শাবি আলোন্সোর কোচিংয়ে চমকপ্রদ পারফরম্যান্সে ছুটে চলেছে লিগ শিরোপার পথে। রেকর্ড বইয়েও তোলপাড় ফেলে দিয়েছে তারা অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতায়।

২৬ ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে তারা এখন শীর্ষে। নিজেদের ইতিহাসে এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি জয়ের রেকর্ড গড়ে ফেলেছে তারা এরমধ্যেই। ২২ জয় আর চার ড্র নিয়ে লিগে এখনও তারা অপরাজেয়। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়েও জার্মান ফুটবলে অপরাজেয় যাত্রার রেকর্ড তারা করে ফেলেছে।

২৬ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন আছে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে।

সবশেষ ১১ আসরের লিগ চ্যাম্পিয়নরা টানা এক ডজন শিরোপা যে জিততে পারছে না, তা এখন নিশ্চিত বলেই মনে করেন লাম। বায়ার্নের হয়ে আটটি বুন্ডেসলিগা শিরোপাজয়ী ডিফেন্ডার রয়টার্সকে বললেন, লিগের জন্য এটা ইতিবাচক ব্যাপার।

“আর আটটি ম্যাচ বাকি আছে এবং ১০ পয়েন্ট মানে বেশ বড় ব্যবধান। আমার বিশ্বাস, লেভারকুজেনই এবার জার্মান চ্যাম্পিয়ন হবে।”

“বায়ার্ন ছাড়া অন্য কোনো দল চ্যাম্পিয়ন হলে আমার মনে হয় না বুন্ডেসলিগার জন্য তা খারাপ কিছু হবে। গত মৌসুমও দারুণ রোমাঞ্চকর ছিল, শেষ দিন শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত উত্তেজনা ছিল, লিগের জন্য যা দারুণ ব্যাপার।”

গত মৌসুমে অনেকটা সময় ধরেই লিগ শিরোপার পথে এগিয়ে ছিল বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। তবে শেষ দিকে খেই হারিয়ে তারা মৌসুমের শেষ দিনে ব্যর্থ হয় নিজেদের কাজটুকু করতে।

এবার লেভারকুজেনের ক্ষেত্রে তেমন কিছুর বাস্তব সম্ভাবনা নেই। নিজেদেরকে অনেকটা ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেছেন তারা। লাম এই কৃতিত্ব দিলেন কোচ আলোন্সোকে।

“মৌসুমের শুরু থেকেই লেভারকুজেন অসাধারণ খেলে আসছে। ভাগ্য ঘুরিয়ে দেওয়া কিছু মুহূর্তও তারা পেয়েছে, বিশেষ করে প্রতিটি ফুটবলারের আলাদা ভূমিকা থাকার কারণে। শাবি আলোন্সো তার দল নিয়ে এই কাজটি খুব ভালোভাবে করতে পেরেছে।”

মৌসুমের পর মৌসুম দাপট দেখানো বায়ার্ন ধুঁকছে কোচিংয়ের অস্থিরতায়। হান্সি ফ্লিক, জুলিয়ান নাগেলসমানরা লম্বা সময় থিতু হতে পারেননি। এই মৌসুম শেষে ক্লাব ছাড়বেন টমাস টুখেলও। এই জায়গায় স্থিতিশীলতার প্রয়োজন দেখছেন পুরো ক্যারিয়ার বায়ার্নে কাটানো লাম।

“দলের জন্য এবং ক্লাবের জন্য সঠিক কোচকে বেছে নিতে হবে বায়ার্নকে। আগের কোচেরা স্রেফ বছর দেড়েক ছিলেন এখানে। এজন্যই গুরুত্বপূর্ণ হলো ধারাবাহিকতা, সেটা এমনকি ম্যানেজমেন্ট পর্যায়েও।”

খেলা ছাড়ার পর এখন বায়ার্নের সঙ্গে তেমন সংযোগ নেই লামের। এখন তিনি চরম ব্যস্ত ইউরোর আয়োজন নিয়ে। জার্মানিতে অনুষ্ঠেয় আসরের টুর্নামেন্ট পরিচালক তিনি। তবে ভবিষ্যতে বার্য়ানে কোনো ভূমিকায় যুক্ত হওয়ার দুয়ার খোলা রাখছেন ৪০ বছর বয়সী বিশ্বকাপজয়ী তারকা।

“সুযোগ পেলে তেমন কিছু হতেও পারে। ফুটবলে যে কোনো ভূমিকাতেই নিশ্চিতভাবে আমি নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করব। তবে আপাতত আমার সব মনোযোগ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ঘিরে।”