দিনামোকে হারিয়ে শেষ ষোলোর পথে বার্সা

ফিনিশিংয়ে খুব একটা উন্নতি না হলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জয়ের ধারা ধরে রেখেছে বার্সেলোনা। ঘরের মাঠে খর্ব শক্তির দিনামো কিয়েভকে হারিয়ে তারা এগিয়ে গেছে শেষ ষোলোর পথে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Nov 2020, 09:53 PM
Updated : 4 Nov 2020, 10:20 PM

কাম্প নউয়ে বুধবার রাতে ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছে রোনাল্ড কুমানের দল। লিওনেল মেসি পেনাল্টি থেকে দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান বাড়ান জেরার্দ পিকে। শেষ সময়ে গোল করে ম্যাচ জমিয়ে তুললেও হার এড়াতে পারেনি ইউক্রেনের দলটি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে এমনিতেই বার্সেলোনা দুর্দান্ত। তারওপর চোট, কার্ড আর করোনাভাইরাসের জন্য দিনামো হারিয়েছে মূল দলের ১৪ জন খেলোয়াড়। শক্তি হারানো দলটিকে চেপে ধরে কুমানের দল।

মেসির সফল স্পট কিকে পঞ্চম মিনিটেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। চলতি আসরে এটি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের তৃতীয় গোল, তিনটিই পেনাল্টি থেকে। তাকেই ডেনিস পোপভ ফাউল করায় পেনাল্টি পেয়েছিল স্বাগতিকরা।

ষষ্ঠ মিনিটে পেদ্রির বুলেট গতির শট ক্রসবার কাঁপিয়ে গোললাইনে পড়ে বাইরে চলে যায়। পরের মিনিটে খুব কাছ থেকে বল জালে পাঠাতে পারেননি অঁতোয়ান গ্রিজমান। তার অবিশ্বাস্য মিসে সে যাত্রায় বেঁচে যায় দিনামো।

সপ্তদশ মিনিটে সফরকারীদের ত্রাতা রুসলান নেশচেরেত। মেসির আড়াআড়ি শট দারুণ দক্ষতায় ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন ১৮ বছর বয়সী গোলরক্ষক।

এরপর ধীরে ধীরে আক্রমণে যায় দিনামো। ৩৫তম মিনিটে প্রায় সমতাও ফিরিয়ে ফেলেছিল দলটি। ভিটালি বুইয়ালস্কির শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন চোট কাটিয়ে মৌসুমে প্রথমবারের মতো মাঠে নামা গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। 

৪২তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর দুটি সুযোগ হাতছাড়া হয় বার্সেলোনার। সের্জিনো দেস্তের ক্রসে পেদ্রির শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। পরে মেসির শট একজনের গায়ে লেগে বার ঘেঁষে বাইরে চলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দুটি দারুণ সুযোগ পায় দিনামো। ৪৬তম মিনিটে বেরিয়ে এসে কর্নারের বিনিময়ে কোনোমতে স্বাগতিকদের বাঁচান টের স্টেগেন। কর্নার থেকে বল জালে পাঠিয়ে ছিল অতিথিরা। কিন্তু বল বাঁক খেয়ে লাইনের বাইরে থেকে ভেতরে ঢোকায় গোল দেননি রেফারি। 

বার্সেলোনার আক্রমণের ঝাপটা সামলে ৫৩তম মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে আবার সুযোগ আসে সফরকারীদের সামনে। এবারও ভোলোদিমির শেপেলিয়েভের চেষ্টা দারুণ দক্ষতায় এগিয়ে এসে ব্যর্থ করে দেন গোলরক্ষক।

৫৮তম মেসির দারুণ ফ্রি কিক পোস্ট ঘেঁষে জালে যাওয়ার পথে ছিল। অসাধারণ দক্ষতায় দলকে বাঁচিয়ে দেন দিনামো গোলরক্ষক।

৬৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পিকে। আনসু ফাতির ক্রসে নিখুঁত হেডে জাল খুঁজে নেন এই ডিফেন্ডার।

তিন মিনিট পর ব্যবধান কমানোর আরেকটি সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া হয় দিনামোর। প্রতি আক্রমণ থেকে টের স্টেগেনকে একা পেয়েছিলেন ভিক্তর টিসাইহানকভ। কিন্তু বার্সেলোনা গোলরক্ষককে ফাঁকি দিতে পারেননি তিনি।

৭৪তম মিনিটে আর জাল অক্ষত রাখতে পারেননি টের স্টেগেন। একটি ফ্লিক তিনি ঠিক মতো বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ছুটে এসে এবার তাকে পরাস্ত করে জাল খুঁজে নেন টিসাইহানকভ।

আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে রোমাঞ্চ ছড়ায় বাকি সময়েও। কিন্তু জালের দেখা আর পায়নি কোনো দলই।

টানা তিন জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে বার্সেলোনা। দিনের অন্য ম্যাচে ফেরেন্সভারোসকে হারানো ইউভেন্তুস ৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে। নিজেদের মধ্যে ড্র করা দিনামো ও ফেরেন্সেভারোসের পয়েন্ট এক করে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক