গোল উৎসবে বায়ার্নের তিনে তিন

ভিক্তোরিয়া প্লাজেনকে নিয়ে ছেলেখেলা করলেন লেরয় সানে, সাদিও মানেরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Oct 2022, 06:41 PM
Updated : 4 Oct 2022, 06:41 PM

আক্রমণের পসরা মেলে ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একচেটিয়া আধিপত্য করল বায়ার্ন মিউনিখ। গোলও মিলল একের পর এক। ভিক্তোরিয়া প্লাজেনকে গুঁড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিল জার্মান চ্যাম্পিয়নরা।

মিউনিখের আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় মঙ্গলবার ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচটি ৫-০ গোলে জিতেছে ইউলিয়ান নাগেলসমানের দল।

জোড়া গোল করেন লেরয় সানে। একটি করে সাদিও মানে, সের্গে জিনাব্রি ও এরিক মাক্সিম চুপো-মোটিং।

ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন চলতি আসরে তিন ম্যাচে ৯ গোল করার বিপরীতে একটিও হজম করেনি। প্রথম দুটিতে ইন্টার মিলান ও বার্সেলোনাকে হারিয়েছিল ২-০ গোলে।

দারুণ এক কীর্তিও গড়ল বায়ার্ন। প্রথম দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত রইল তারা।

চেক রিপাবলিকের ক্লাব প্লাজেনের বিপক্ষে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এই নিয়ে পাঁচ ম্যাচ খেলে সবগুলোই জিতল মিউনিখের দলটি।

ঘরের মাঠে ম্যাচের প্রথম ২১ মিনিটের মধ্যেই তিন গোল করে বড় জয়ের পথে এগিয়ে যায় বায়ার্ন।

সপ্তম মিনিটে গোলের সূচনা করেন সানে। জামাল মুসিয়ালার সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে প্রতিপক্ষের দুই খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে এগিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি।

আসরে দলের প্রথম তিন ম্যাচেই জালের দেখা পেলেন ২৬ বছর বয়সী এই জার্মান ফরোয়ার্ড।

ত্রয়োদশ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জিনাব্রি। লেয়ন গোরেটস্কার পাস ডি-বক্সে পেয়ে ডান পায়ের শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ২৭ বছর বয়সী জার্মান ফরোয়ার্ড। খানিক পর বক্সে ঢুকে বাঁ পায়ের শটে স্কোরশিটে নাম লেখান মানে।

৩৬তম মিনিটে জালে বল পাঠান মুসিয়ালাও, কিন্তু আক্রমণের শুরুতে মানে অফসাইডে থাকায় এ যাত্রায় গোল মেলেনি। চার মিনিট পর গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে সুযোগ হারান মানে।

দ্বিতীয়ার্ধেও অব্যাহত থাকে বায়ার্নের আক্রমণের ধারা। ৫০তম মিনিটে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় ও আসরে চতুর্থ গোলের দেখা পান সানে। মানের ক্রস ডি-বক্সে দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁ পায়ের শটে জাল খুঁজে নেন তিনি।

৫৯তম মিনিটে গোরেটস্কার পাস ধরে স্কোরলাইন ৫-০ করেন দ্বিতীয়ার্ধে মুসিয়ালার বদলি নামা চুপো-মোটিং। ক্লাবের হয়ে ২২৭ দিনের গোল খরা কাটালেন ক্যামেরুনের ৩৩ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।

ব্যবধান বাড়তে পারত আরও, বাকি সময়ে বায়ার্নের কেউ পোস্টের বাইরে শট নেন, আবার কারও শট ঠেকিয়ে দেন সফরকারী গোলরক্ষক।

বুন্ডেসলিগায় টানা চার ম্যাচে জয়হীন থাকার পর গত শুক্রবার বায়ার লেভারকুজেনকে ৪-০ গোলে হারিয়েছিল বায়ার্ন। এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এই জয়, এখন আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকার কথা তাদের!

তিন ম্যাচে শতভাগ সাফল্যে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বায়ার্ন। এক ম্যাচ করে কম খেলে ৩ পয়েন্ট পাওয়া বার্সেলোনা ও ইন্টার মিলান মুখোমুখি হবে দিনের পরের ম্যাচে।

তিন ম্যাচেই হারা প্লাজেন এখনও পয়েন্ট পায়নি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক