ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৫৬ দিনে মাদক মামলার রায়

এ মামলার অস্ত্রের অংশ জজ আদালতে চলমান আছে বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বশির আহমেদ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 August 2022, 05:59 PM
Updated : 7 August 2022, 05:59 PM

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক মামলা দায়েরের ৫৬ দিনের মাথায় বিচার প্রক্রিয়া শেষে এক যুবককে চার বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রোববার জেলা মুখ্য বিচারিক হাকিম মাসুদ পারভেজ এ রায় ঘোষণা করেন বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বশির আহমেদ।

সাজাপ্রাপ্ত জুয়েল মিয়া (৩০) জেলার কসবা উপজেলার উত্তর চকবস্তা গ্রামের মৃত আবুল বাশারের ছেলে।

জুয়েলকে দুই হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে; যা অনাদায়ে তাকে আরও দুই মাসের কারাবাসে থাকতে হবে।

মামলার নথির বরাতে আইনজীবী বশির আহমেদ জানান, জুয়েল হত্যাসহ ১৫টি মামলার আসামি। মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত এই আসামি পলাতক ছিলেন। চলতি বছরের ১১ জুন তাকে কুমিল্লার কান্দিরপাড় থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। গ্রেপ্তারের পর র‌্যাব তাকে নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কসবায় অভিযান চালায়।

“জুয়েলের দেওয়া তথ্যে তার বাড়ি থেকে দুটি গুলিসহ একটি রিভলবার এবং ৬০০ ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। এর পরদিন র‌্যাবের এসআই আব্দুল মান্নান বাদী হয়ে কসবা থানায় মামলা দায়ের করেন।”

রাষ্ট্রপক্ষের এ আইনজীবী বলেন, মামলাটি পরে জেলা গোয়েন্দা শাখায় স্থানান্তর করা হয়। মামলার ১৪ দিনের মাথায় গত ২৬ জুন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

পরবর্তীতে এই মামলার মাদক আইনের অংশের বিচার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এবং অস্ত্র আইনের অংশের বিচার দায়রা জজ আদালতে শুরু হয়।

বশির আহমেদ জানান, রোববার মাদকের মামলায় অভিযুক্ত জুয়েলকে চার বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।”

দ্রুততম সময়ে বিচার কাজ শেষ করায় সন্তুষ্ট বলে বশির আহমেদ জানিয়েছেন।

আসামি পক্ষের আইনজীবী আনোয়ার হোসেন বলেন, “মামলায় অনেক ফাঁক আছে। রাষ্ট্রপক্ষ অপরাধ প্রমাণ করতে পারেনি। আমরা এ রায়ে সংক্ষুব্ধ। তাই উচ্চ আদালতে ন্যায় বিচার পেতে আপিল করব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক