উপজেলা নির্বাচনে ভোটার বাড়বে, সঙ্গে দ্বন্দ্বও: রাশেদা সুলতানা

নির্বাচন কমিশনের প্রতি ভোটারদের আস্থা ফিরেছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

রংপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2024, 07:01 PM
Updated : 31 March 2024, 07:01 PM

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচনি কর্মকর্তাদের নিরপেক্ষ ভূমিকা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

তিনি বলেছেন, “উপজেলা ভোটে যেহেতু দলীয় প্রতীক নেই, এজন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়বে। ভোটের পরিবেশ ভালো থাকায়, ভোটার উপস্থিতিও বাড়বে। সেই সঙ্গে বাড়বে দ্বন্দ্বও। এজন্য প্রশাসনের মাঝে সমন্বয় ও নিরপেক্ষতা দরকার।”

কোনোভাবেই নির্বাচনকে কলুষিত করা সহ্য করা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন রাশেদা সুলতানা।

রোববার দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন নির্বাচন কমিশনার। পরে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

প্রার্থীদের প্রার্থীসুলভ আচরণ করার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করে রাশেদা সুলতানা বলেন, “খারাপ নির্বাচন হলে গণতন্ত্র বিপন্ন হবে, তা আমরা চাই না। আমরা এ প্রজন্মের মাঝে ভালো নির্বাচন উপহার দিতে চাই। কোনোভাবে নির্বাচন কলুষিত হয় এ ধরনের কর্মকাণ্ড অতীতে মেনে নেওয়া হয়নি, ভবিষ্যতেও মেনে নেওয়া হবে না।”

নির্বাচন কমিশনের প্রতি ভোটারদের আস্থা ফিরেছে দাবি করে রাশেদা সুলতানা বলেন, “জাতীয় নির্বাচনের পর নির্বাচন কমিশন নিয়ে কোনো নেগেটিভ কথা আর শোনা যায় না। ফলে নির্বাচন কমিশনের জন্য আস্থার জায়গা তৈরি হয়েছে। আমরা শুরু থেকেই নির্বাচন কমিশনের প্রতি মানুষের ও ভোটারদের আস্থা ফিরিয়ে আনতে কাজ করেছি।”

রংপুর বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন রংপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. মনিরুজ্জামান, রংপুর রেঞ্জ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি পঙ্কজ চন্দ্র রায়, রংপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসান, জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার আব্দুল্লাহ আল মোতাহসিন।