মাঝসাগরে জেলেকে হত্যা করে ট্রলারসহ মাছ লুটের অভিযোগ

হত্যার শিকার জেলে এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছে বরগুনার পাথরঘাটা থানা পুলিশ।

বরগুনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Feb 2024, 06:35 PM
Updated : 16 Feb 2024, 06:35 PM

বঙ্গোপসাগরে এক জেলেকে কুপিয়ে হত্যা করে ট্রলারসহ মাছ লুটের অভিযোগ উঠেছে। এতে আহত হয়েছেন আরও এক জেলে। এ ঘটনায় এক জেলেকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার গভীররাতে সাগর থেকে ফেরার পথে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার পানখালীর দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় পুলিশ।

নিজেদের মধ্যে বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন পাথরঘাটা থানার ওসি আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, আটক ইব্রাহিমকে (৩৮) প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এ তথ্য পাওয়া গেছে।


নিহত জেলে রাশাদ খান (৩২) পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ এলাকার আলতাফ হোসেনের ছেলে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তার মরদেহ খুঁজে পাওয়া যায়নি।


আহত জেলে জামাল হোসেন (৩০) ওই এলাকার বাসিন্দা। তিনি পটুয়াখালীর একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

আহত জামালের বরাতে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, “ট্রলার মালিক রাশাদ ট্রলার বোঝাই মাছ নিয়ে সাগর থেকে উপকূলে ফিরছিলেন। তার সঙ্গে ছিলেন জামাল ও ইব্রাহিম। বেশি মাছ দেখে লোভে পড়েন ইব্রাহিম।

“এক পর্যায়ে ইব্রাহিম মাছ লুট করতে রাশাদকে কুপিয়ে হত্যা করে সাগরে ফেলে দেন। তাকে বাঁচাতে জামাল এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। প্রাণ বাঁচাতে জামাল সাগরে ঝাঁপ দেন।

“পরে মাছসহ সেই ট্রলার পাথরঘাটা ঘাটে নিয়ে বিক্রি করেন ইব্রাহিম। তবে ক্রেতাকে মাছ সংরক্ষণের জন্য বরফ কিনে দিতে কেবি-রুপালী বরফকল ঘাটে গেলে জনতা তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।”

ওসি আনোয়ার বলেন, ট্রলারটি জব্দ করা হয়েছে। এটি গলাচিপায় পাঠানো হবে। সেখানে নিলামে মাছ বিক্রি করে ট্রলার মালিকের পরিবারকে দেওয়া হবে।