ভোলায় ছাত্রদল সভাপতি হত্যায় পুলিশের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন

এ বিষয়ে আদালত পুলিশকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছে।

ভোলা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 August 2022, 10:56 AM
Updated : 11 August 2022, 01:09 PM

ভোলায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের সময় জেলা ছাত্রদল সভাপতি নূরে আলম নিহত হওয়ার ঘটনায় ৪৬ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে হত্যা মামলার আবেদন করা হয়েছে।

ভোলার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে বৃহস্পতিবার দুপুরে এই আবেদন করেন নূরে আলমের স্ত্রী ইফ্ফাত জাহান।

আবেদনে ৪৬ পুলিশ সদস্য ছাড়াও অজ্ঞাত ২৫-৩০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে বলে বাদীর আইনজীবী আমিরুল হক বাসেত জানান।

ভোলা থানার এসআই আনিস উদ্দিনকে ১ নম্বর ও পরিদর্শক আরমান হোসেনকে ২ নম্বরে রাখা হয়েছে।

আইনজীবী বাসেত বলেন, বিচারক আলী হায়দার কামাল মামলাটি আমলে নিয়ে আগামী ৮ সেপ্টম্বরের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে ভোলা থানার ওসিকে আদেশ দিয়েছেন। সেই প্রতিবেদনের ওপর শুনানি শেষে আদালত পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে।

মামলায় বিনা উস্কানিতে গুলি করে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত ৩১ জুলাই লোডশেডিং ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে ভোলা বিএনপি ও তাদের সহযোগী সংগঠনগুলো বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। একপর্যায়ে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য আবদুর রহিম নিহত হন। আহত হন জেলা ছাত্রদল সভাপতি নূরে আলম। ঢাকার একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখার তিন দিন পর তিনি মারা যান।

সেই ঘটনায় তার স্ত্রী ইফ্ফাত জাহান দুপুরে এই হত্যা মামলার আবেদন করেন।

এর আগে সংঘর্ষের সময় স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুর রহিম নিহতের ঘটনায় আদালতে একটি হত্যা মামলার আবেদন করেন তার স্ত্রী খাদিজা বেগম।

তাছাড়া এসব ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলা এবং একটি পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের করা হয়।

আরও

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক