কামারখন্দে সংঘর্ষ: বিএনপির ১৭৬ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ২

পুলিশ মামলা নেয়নি অভিযোগ করে রোববার আদালতে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন বিএনপি নেতারা।

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Nov 2022, 08:49 AM
Updated : 19 Nov 2022, 08:49 AM

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির ১৭৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। মামলার আসামি দুই বিএনপি নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কামারখন্দ থানার ওসি নুরনবী প্রধান বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় কামারখন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সেলিম রেজা বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে এই মামলা দায়ের করেছেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে ওই মামলার দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তারা হলেন, কামারখন্দ উপজেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক হাবিল মণ্ডল ও উপজেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক লাভলু তালুকদার।

এ ছাড়াও মামলায় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু, সহ-সভাপতি নাজমুল হাসান তালুকদার রানা, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ভিপি শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ সুইট, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কায়েস, কামারখন্দ উপজেলা বিএনপির সভাপতি বদিউজ্জামান ফেরদৌস ও সাধারণ সম্পাদক রেজাতে রাব্বি উত্থানসহ ২৬ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু জানান, “বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপরে হামলা ও মাইক্রোবাস ভাংচুরের ঘটনায় শুক্রবার রাতেই থানায় মামলা করতে লোক পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু পুলিশ মামলা নেয়নি। আমরা রোববার আদালতে মামলা করবো।”

এদিকে, কামারখন্দে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপিকে দায়ী করে তার প্রতিবাদে শনিবার বেলা ১১টার দিকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে জেলা আওয়ামী লীগ।

এরপর একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. কে. এম হোসেন আলী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার ও সিরাজগঞ্জ-২ (সদরের একাংশ ও কামারখন্দ) আসনের সংসদ সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, বিএনপির নেতা-কর্মীরা জেলা সদর থেকে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে কামারখন্দে গিয়ে পরিকল্পিতভাবে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ওই ঘটনায় আওয়ামী লীগের ছয় নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

বক্তারা আগামীতে যে কোনো ধরনের নাশকতা প্রতিরোধে দলীয় নেতা-কর্মীদের সজাগ থাকার আহ্বান জানান এবং সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত বিএনপি নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার দাবি করেন।

রাজশাহীর বিভাগীয় সমাবেশ সফল করার জন্য শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে কামারখন্দ উপজেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে বিএনপি। সমাবেশ শেষ করে বিএনপি নেতারা ফেরার পথে সংঘর্ষ, মাইক্রোবাস ভাংচুর ও ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন

Also Read: সিরাজগঞ্জে বিএনপি সভাপতির গাড়িতে হামলা, ভাংচুর

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক