সিরাজগঞ্জে দুই সন্তানসহ মাকে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড

২০২২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর আইয়ুব আলী তার আত্মীয় রওশন আরা ও দুই সন্তানকে হত্যা করেন।

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Feb 2024, 09:37 AM
Updated : 25 Feb 2024, 09:37 AM

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় দুই শিশু সন্তানসহ মাকে হত্যার দায়ে এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রোববার দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফজলে-খোদা মো. নাজির আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন বলে আদালতের স্টেনোগ্রাফার রাশেদুল ইসলাম জানান।

দণ্ডপ্রাপ্ত আইয়ুব আলী ওরফে সাগর (৩১) উল্লাপাড়া উপজেলার নন্দিগাঁতী গ্রামের মৃত মোকছেদ মোল্লার ছেলে।

মামলায় বলা হয়, বেলকুচি উপজেলার মবুপুর গ্রামের সুলতান আলীর স্ত্রী রওশন আরা খাতুন (৩০) আইয়ুব আলীর সৎ বোনের মেয়ে। তারা সম্পর্কে মামা-ভাগনি। আইয়ুব তাঁতের কাজ করতেন। কিন্তু বিভিন্ন এনজিও থেকে তিনি ঋণ নিয়ে বিপদে পড়েন।

আইয়ুব আলী ২০২২ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর রওশন আরার কাছে এসে টাকা ধার চান। কিন্ত রওশন টাকা দিতে রাজি হননি। রওশনের ঘরে চারটি ট্রাঙ্ক দেখে আইয়ুবের ধারণা হয়, সেখানে টাকা আছে। তাই তিনি চুরির সিদ্ধান্ত নেন। 

২৮ সেপ্টেম্বর আইয়ুব আবার রওশনের বাড়ি যান এবং রাতে সেখানে থাকেন। সবাই ঘুমিয়ে পড়ার পর আইয়ুব চাবি দিয়ে ট্রাঙ্ক খুলেন। চুরির একপর্যায়ে রওশন আরাকে বুকে পাথরের আঘাত করে এবং পরে গলা টিপে হত্যা করা হয়।

এ সময় রওশন আরার ছেলে জিহাদ হোসেন (১০) ও মাহিন (৩) ঘুম থেকে উঠে পড়লে আইয়ুব তাদেরকেও শ্বাসরোধে হত্যা করেন। কিন্তু ট্রাঙ্কে কোনো টাকা না পেয়ে আইয়ুব বাইরে থেকে ঘরের দরজায় শিকল দিয়ে পালিয়ে যান।    

এ ঘটনায় রওশন আরার ভাই নুরুজ্জামান বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় আইয়ুব আলীকে গ্রেপ্তার করে। পরে তিনি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

আদালতের স্টেনোগ্রাফার রাশেদুল ইসলাম বলেন, রায়ে আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।