মালয়েশিয়ায় প্রবাসীদের সরাসরি পাসপোর্ট সংগ্রহের সুযোগ

কর্মীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ পেতে এ কর্মসূচি চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দূতাবাস।

রফিক আহমদ খানকুয়ালালামপুর থেকে
Published : 5 Dec 2023, 08:23 AM
Updated : 5 Dec 2023, 08:23 AM

মালয়েশিয়ায় অনথিভুক্ত বিদেশি কর্মীদের চলমান বৈধকরণ কর্মসূচি ‘রিক্যালিব্রেশন প্রোগ্রাম ২.০’ (আরটিকে ২.০) প্রক্রিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্যও বৈধ হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

এই সুযোগ কাজে লাগাতে পোস্ট অফিসের পাশাপাশি কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাই কমিশনের পাসপোর্ট সার্ভিস সেন্টার ও বাংলাদেশি রেমিট্যান্স হাউস সিটি ব্যাংক (সিবিএল) মানি ট্রান্সফার থেকে হাতে হাতে পাসপোর্ট সরবরাহ সুবিধা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাই কমিশন।

সোমবার হাই কমিশনের প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) পাসপোর্ট ও ভিসা উইংয়ে অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রণব কুমার ঘোষের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ১৭, ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বর এই তিনদিন স্থানীয় সময় সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কুয়ালালামপুরের সিবিএল মানি ট্রান্সফার রেমিট্যান্স হাউস থেকে সরাসরি পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা। সংগ্রহকারীদের আগামী ১২ থেকে ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

এছাড়া আগামী ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর দুদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত হাই কমিশনের পাসপোর্ট সার্ভিস সেন্টার থেকে সরাসরি পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা। এক্ষেত্রে সরাসরি পাসপোর্ট সংগ্রহকারীদের যথাক্রমে আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

মালয়েশিয়ায় বর্তমানে অনথিভুক্ত বা অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরণ কর্মসূচি চলছে। ‘আরটিকে ২.০’ নামে এই কর্মসূচি চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে; যা শেষ হবে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর। এই সময়ের মধ্যে যাতে সব প্রবাসী বাংলাদেশি তাদের নাম নিবন্ধন করতে পারেন, সেই লক্ষ্যে পাসপোর্ট সেবা দিতে নতুন এ উদ্যোগ হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ হাই কমিশন।

যেসব পাসপোর্ট আবেদনকারীর তথ্য অনলাইনে থাকবে শুধু তারাই সরাসরি উপস্থিত হয়ে হাতে হাতে পাসপোর্ট নিতে পারবেন। এছাড়া পোস্ট অফিসের মাধ্যমেও পাসপোর্ট বিতরণের সেবা যথারীতি চালু থাকবে।

নির্ধারিত স্থান থেকে পাসপোর্ট নিতে https://appointment.bdhckl.gov.bd/other এই ঠিকানায় গিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। পাসপোর্ট সংগ্রহের জন্য ডাকযোগ সেবাও চালু থাকবে। তবে একইসঙ্গে দুই ধরনের সেবা নেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনুরোধ করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।