একজিমা আক্রান্ত রোগীর কাপড়ের যত্ন

নতুন কাপড় না ধুয়ে পরা যাবে না।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2022, 09:31 AM
Updated : 30 Nov 2022, 09:31 AM

কাপড়ের ধরন, রং থেকে শুরু করে ধুতে কী সাবান ব্যবহার করা হচ্ছে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হয়।

ত্বকে যখন একজিমা হয় তখন রঞ্জক বা রং ও সুগন্ধির মতো উপাদান জ্বালাপোড়া বাড়াতে পারে। তাই এই ধরনের পণ্য ব্যবহারের আগে যাচাই করে নেওয়া উচিত বলে মনে করেন, নিউ জার্সির মন্টক্লেয়ারের ত্বক বিশেষজ্ঞ জেনিন ডাউনি।

ব্যবহারের আগে নতুন কাপড় ও বিছানাপত্র ধুয়ে নেওয়া

ওয়েলঅ্যান্ডগুড ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ বলেন, “নতুন কেনা কোনো কাপড় বা বিছানার চাদর না ধুয়ে ও শুকিয়ে ব্যবহার করা যাবে না। এতে কী উপকরণ বা রাসায়নিক উপাদান রয়েছে তা আমরা জানি না। তাই ধুয়ে নেওয়া ভালো।”

ডিটার্জেন্ট

কাপড় ধোয়ার সময় সুগন্ধ ও রংহীন ডিটার্জেন্ট ব্যবহার করা উচিত। এই ধরনের ডিটার্জেন্ট দিয়ে কাপড় ধোয়া হলে বিরক্তিকর ঘ্রাণ রেখে যায় না। ত্বকেও প্রভাব ফেলে না।

কাপড় নরম ও শুষ্ক করে এমন উপাদান থেকে দূরে থাকা

ডা. ডাউনি ‘ফ্যাব্রিক সফটনার বা ড্রায়ার শিট’ ব্যবহার না করার পরামর্শ দেন। এগুলো কাপড়ের ওপরে আস্তরণ ও সুগন্ধ রেখে যায় যা ত্বকে চুলকানি বাড়াতে পারে।”

ড্রাই ক্লিনারে সংবেদনশীল ত্বকের জন্য প্রযোজ্য কিনা তা যাচাই করা

ডা. ডাউনি বলেন, “আপনি কোথায় থাকেন তার ওপরে নির্ভর করবে ড্রাই ক্লিন করা যাবে কি-না।”

ড্রাই ক্লিনার যারা করে অনেক সময় তারা সংবেদনশীল ত্বকের জন্য ব্যবস্থা নেয়। একজিমাবান্ধব উপায়ে কাপড় শুকাতে সহায়তা করে।

এমন সুব্যবস্থা থাকলে ড্রাই ক্লিনার ব্যবহার করা নিরাপদ।

আরও পড়ুন

Also Read: কাপড় ছাড়াও যা ধোয়া যায় ওয়াশিং মেশিনে

Also Read: সিল্ক শাড়ির যত্ন

Also Read: অন্তর্বাস ধোয়ার পদ্ধতি

Also Read: কাপড় বিবর্ণ হয়ে যাওয়া রোধ করতে

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক