চুলের ধরন বুঝে শ্যাম্পু বাছাই

একেক শ্যাম্পুতে একেক উপাদানের মিশ্রণ থাকে। যা কিনা চুল ভেদে ভিন্নভাবে কাজ করে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Sept 2022, 07:40 AM
Updated : 18 Sept 2022, 07:40 AM

বিজ্ঞাপনের মধুর কথায় না ভুলে, চুলের জন্য সঠিক শ্যম্পু বেছে নিন নিজ গুণে।

চুলের রয়েছে নানা রকম। যেমন- কারও চুল ঘন, কারও পাতলা, কারো মোটা, রুক্ষ, সিল্কি আবার কারওটা মিশ্র। রকম ভেদে উপযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহারে চুলের নানান সমস্যা দূর করা যায়।  

নয়া দিল্লির ‘স্কিনকিউর ক্লিনিক’য়ের ত্বক বিশেষজ্ঞ ও হেয়ার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জন ডা. বি এল জঙ্গিদ বলেন, “চুলে দেখে এর ধরন বোঝা যায়। চুল ঘন, পাতলা, কোঁকড়া বা মিশ্রও হতে পারে। পাতলা চুল দেখতে মসৃণ, সিল্কি লাগে আবার ঘন চুল দেখতে মোটা, কিছুটা শক্ত ও কোঁকড়া লাগে যা স্বাভাবিকভাবেই ভারী ও নিয়ন্ত্রণ করা কিছুটা কঠিন হয়।”

রুক্ষ বা শুষ্ক চুলের জন্য হরমোনের পরিবর্তন বা পুষ্টির ঘাটতি অনেকক্ষেত্রে দায়ী। এছাড়াও নানান পণ্য ব্যবহার ও রং করা চুলের ক্ষতি করে। রুক্ষ ও নির্জীব করে তোলে। তাই এসব বিষয় বিবেচনা করে চুলের পরিচর্যা করা উচিত।

মনে রাখতে হবে চুল ও মাথার সকল ধরনের সমস্যা কেবল একটা শ্যাম্পু দিয়ে করা সম্ভব না। অনেক ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হতে হয়। 

যে কোনো সমস্যা সমাধানের জন্য গোড়া থেকে কাজ করা উচিত। শ্যাম্পু নির্বাচনের ক্ষেত্রেও তাই।

“মাথার ত্বক ও চুলের সমস্যা যাচাই করে, সে অনুযায়ী শ্যাম্পু বাছাই করা হলে মাথার ত্বক ভালো থাকে এবং চুল সুন্দর হয়,” ফেমিনা ডটইন’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এভাবেই পরামর্শ দেন ডা. জঙ্গিদ।

মাথার ত্বকের ধরন বুঝে শ্যাম্পু

সাধারণত, ১৫ থেকে ২৫ বছর বয়সীদের মধ্যে মাথার ত্বক তৈলাক্ত হওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। সেক্ষেত্রে আর্দ্রতা রক্ষাকারী, ময়েশ্চারাইজিং ও সুদিং শ্যাম্পু এড়ানো ভালো। এগুলো মাথার ত্বককে আরও চিটচিটে ও তৈলাক্ত করে ফেলে।

সালফেট আছে এমন শ্যাম্পু এই ধরনের চুলের জন্য উপকারী। এতে মাথার ত্বকের বাড়তি তেল দূর হয়। তবে খেয়াল রাখতে হবে যেন ঘন ঘন ব্যবহার করা না হয়, এতে চুলের ক্ষতি হতে পারে।

সালফেট আছে এমন শ্যাম্পু ব্যবহারের পরে কন্ডিশনার ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয় যেন পরে চুলের ক্ষতি না হয়।

মাথার ত্বক শুষ্ক হলে সালফেট আছে এমন শ্যাম্পু ব্যবহার না করাই ভালো। এই ধরনের চুলে সালফেট মুক্ত শ্যাম্পু ভালো কাজ করে। মাথার ত্বক পরিষ্কার করার পাশাপাশি প্রাকৃতিক তেল বজায় রাখতে সহায়তা করে।

যাদের মাথার ত্বকে সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য মেডিকেইটেড শ্যাম্পু ব্যবহার করাই শ্রেয়। এই ধরনের শ্যাম্পু বিশেষজ্ঞ দ্বারা স্বীকৃতি এবং সমস্যা সমাধানে উপকারী।

চুলের ধরন বুঝে শ্যাম্পু

যাদের চুল কিছুটা পাতলা তাদের ‘ভলিউম’ বা ঘনত্ব বাড়ায় এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত। এতে চুল দেখতে ঘন লাগে। ঢেউ খেলানো, কোঁকড়া বা রুক্ষ চুলের জন্য আর্দ্রতা রক্ষা করে এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করা ভালো। চুল আর্দ্র থাকার পাশাপাশি উজ্জ্বলও লাগে।

এই ধরনের চুলের জন্য সালফেট মুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করা উপকারী।

আরও পড়ুন

Also Read: প্রতিদিন শ্যাম্পু ও কন্ডিশনিং করলে যা হয়

Also Read: সেরাম ব্যবহারের ভুলগুলো

Also Read: কন্ডিশনার ব্যবহারের ভুলগুলো

Also Read: শ্যাম্পুর আগে কন্ডিশনিং

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক