চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের বাড়ির পাশের সাইনবোর্ড ভেঙেছে কারা?

"কারা এটি ভেঙেছে, কখন ভেঙেছে, আর কেন ভেঙেছে- আমরা বলতে পারছি না,” বলেন তারেকে ভাই মাসুদ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Feb 2024, 05:39 AM
Updated : 6 Feb 2024, 05:39 AM

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় প্রয়াত চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের বাড়ির পাশের সড়কে তার নাম সম্বলিত একটি সাইনবোর্ড রেখেছিল সরকারের সড়ক ও জনপথ বিভাগ। ওই সাইনবোর্ডটি দুর্বত্তরা ভেঙে ফেলেছে বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

তারেক মাসুদের ছোট ভাই মাসুদ বাবু সোমবার গ্লিটজকে এ খবর জানান। তবে প্রমাণ না পেয়ে ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত কারও নাম তিনি প্রকাশ করে চাননি।

মাসুদ বাবু বলেন, “কারা এটি ভেঙেছে, কখন ভেঙেছে, আর কেন ভেঙেছে- আমরা বলতে পারছি না। হঠাৎ করেই দেখলাম এটি ভেঙে রাস্তার পাশে ফেলে রাখা হয়েছে। আমাদের কিছু সন্দেহ হচ্ছে, কারা করতে পারে। তবে নিশ্চিত না হয়ে এখনই নাম বলতে চাই না।"

এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে বাবু বলেন, “এখনো থানায় অভিযোগ জানাইনি। আমরা বিষয়টি থানায় অবহিত করব। বাংলাদেশের প্রতিভাবান চলচ্চিত্র নির্মাতা একুশে পদকপ্রাপ্ত তারেক মাসুদের নামে সাইনবোর্ডটি ভেঙে ফেলা হয়েছে, আমি মনে করি এটি অপরাধের মত ঘটনা। তাই তদন্ত করে এর প্রতিকার চাই।"

তারেক মাসুদের জন্ম ভাঙ্গা নূরপুর গ্রামে। ২০১১ সালের ১৩ অগাস্ট ‘কাগজের ফুল’ সিনেমার লোকেশন দেখে ফেরার পথে মানিকগঞ্জের ঘিওরের জোকা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন নির্মাতা তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন। 

ওই দুর্ঘটনায় মাইক্রোবাসের চালক মুস্তাফিজ, তারেক মাসুদের প্রোডাকশন ম্যানেজার ওয়াসিম ও কর্মী জামালও মারা যান।

গাড়িতে থাকা তারেকের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ, চিত্রশিল্পী ঢালী আল-মামুন ও তার স্ত্রী দিলারা বেগম জলি এবং তারেকের প্রোডাকশন ইউনিটের সহকারী সাইদুল ইসলাম আহত হলেও তারা প্রাণে বেঁচে যান।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)