কিংবদন্তী শিল্পী এলভিস প্রিসলির মেয়ে লিসা মারির মৃত্যু

লিসা মারি প্রিসলি পপ তারকা মাইকেল জ্যাকসনের সাবেক স্ত্রীও ছিলেন। ১৯৯৪ সালে তারা বিয়ে করেছিলেন।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Jan 2023, 06:11 AM
Updated : 13 Jan 2023, 06:11 AM

‘রক অ্যান্ড রোল’ কিংবদন্তী এলভিস প্রিসলির একমাত্র মেয়ে লিসা মারি প্রিসলি মারা গেছেন, যিনি নিজেও একজন সংগীত শিল্পী ছিলেন।

বিবিসি জানিয়েছে, লিসা মারি প্রিসলির বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

লিসা মারি প্রয়াত পপ তারকা মাইকেল জ্যাকসনের সাবেক স্ত্রী। ১৯৯৪ সালে তারা বিয়ে করেছিলেন। দুই বছর সংসার করার পর তাদের বিচ্ছেদ হয় ১৯৯৬ সালে। 

লিসা মারির মা প্রিসিলা প্রিসলি এক বিবৃতিতে বলেন, “দুঃখ ভারাক্রান্ত হৃদয়ে মর্মান্তিক একটি খবর সবাইকে জানাতে হচ্ছে। আমার মে লিসা মারি সবাইকে ছেড়ে চলে গেছে।“

বিবৃতিতে প্রিসিলা তার মেয়েকে তার দেখা সবচেয়ে ‘আবেগী, দৃঢ় ও স্নেহময়’ নারী হিসেবে বর্ণনা করেন।

বিনোদন ওয়েবসাইট টিএমজেড জানাচ্ছে, লিসা মারিকে লস অ্যাঞ্জেলেসের শহরতলি ক্যালাবাসাসে বাড়ির শয়নকক্ষে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে তার প্রথম স্বামী সংগীত শিল্পী ড্যানি কেওফ সেখানে যান।

পরে লিসা মারিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এই শিল্পী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে জানিয়েছে টিএমজেড।

তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত না জানিয়ে মা প্রিসিলা বলেন, “মেয়ে হারানোর শোক ও ক্ষত কাটিয়ে উঠতে নিজের মত করে থাকার জন্য কিছুটা সময় চেয়ে নিচ্ছি।“

লিসা মারি প্রিসলির জন্ম ১৯৬৮ সালে। মাত্র নয় বছর বয়সে, ১৯৭৭ সালে বাবা এলভিস প্রিসলিকে তিনি হারান।

তার সংগীত ক্যারিয়ার শুরু ২০০৩ সালে। প্রথম স্টুডিও অ্যালবাম ‘টু হুম ইট মে কনসার্ন। এরপর ২০০৫ সালে আসে তার ‘নাউ হোয়াট’ অ্যালবাম। তৃতীয় ও শেষ অ্যালবাম ‘স্টর্ম অ্যান্ড গ্রেস’ প্রকাশিত হয় বেশ বিরতি দিয়ে, ২০১২ সালে।

ব্যক্তি জীবনের চারবার বিয়ে করেন এই শিল্পী। লিসা মারির চার সন্তান, তাদের মধ্যে একজন বেঞ্জামিন কিওফ আত্মহত্যা করেন ২০২০ সালে।

মঙ্গলবার বেভারলি হিলটনে গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ডসের আসরে শেষবারের মতো জনসম্মুখে দেখা যায় লিসা মারি প্রিসলিকে। ‘এলভিস’ সিনেমায় লিসা মারির বাবার চরিত্রে অভিনয়ের জন্য এবার সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতে নেন অভিনেতা অস্টিন বাটলার। অনুষ্ঠানে তিনি প্রিসিলা ও লিসা মারিকে বিশেষ ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন তাকে সহযোগিতার জন্য।

লিসা মারি প্রিসলির মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সংগীতাঙ্গনের অনেকেই শোক জানিয়েছেন।

গ্র্যামি পুরস্কার বিজয়ী ডায়ান ওয়রেন এই মৃত্যু সংবাদকে ‘ভয়াবহ’ বর্ণনা করে শোক প্রকাশ করেছেন। তার ভাষায়, “গোটা বিশ্ব প্রিসিলা ও লিসা মারি প্রিসলিকে ভালোবাসা জানাচ্ছে।“

‘বিচ বয়েজ’ এর সহ প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান উইলসন বলেন, ”কেউ যখন এত অল্প বয়সে আমাদের ছেড়ে চলে যায়, তখন সেটা মেনে নেওয়া কঠিন।“

অস্কার জয়ী অভিনেত্রী মারলি ম্যাটলিন টুইটে লিখেছেন, “কাছ থেকে লিসা মারি প্রিসলিকে জানার সুযোগ আমার হয়েছিল। একজন মা হিসেবে তার মায়ের যন্ত্রণা উপলব্ধি করতে পারছি।“

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক