শিল্পী সমিতি নির্বাচন: নিপুণের আপিল শুনবে আপিল বিভাগ

জায়েদ খানকে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে থাকার বৈধতা দিয়ে হাই কোর্টের দেওয়া রায় আপাতত স্থগিতই থাকছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Nov 2022, 06:27 AM
Updated : 21 Nov 2022, 06:27 AM

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে হাই কোর্টের রায় স্থগিত রেখে ওই পদের দাবিদার চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তারের লিভ টু আপিল (আপিলের জন্য অনুমতি) গ্রহণ করেছে আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বে তিন বিচারকের আপিল বেঞ্চ সোমবার এ সিদ্ধান্ত দেয়।

সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদের আরেক দাবিদার জায়েদ খানের পক্ষে আপিল বিভাগে শুনানি করেন আইনজীবী আহসানুল করিম ও আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যুথি। নিপুণের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান খান।

মোস্তাফিজুর রহমান খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আপিল বিভাগের এ আদেশের ফলে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুণ আক্তারের দায়িত্ব পালনে আর কোনো বাধা নেই।”

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয় এ বছরের ২৮ জানুয়ারি, পরদিন ঘোষিত ফলে সভাপতি পদে ইলিয়াস কাঞ্চন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

সাধারণ সম্পাদক পদের আরেক প্রার্থী নিপুণ নির্বাচনের সময়ই ‘টাকা দিয়ে ভোট কেনার’ অভিযোগ করেছিলেন জায়েদের বিরুদ্ধে। ভোটের ফল প্রকাশের পর তিনি আপিল করেন।

তার আপিলে ভোট পুনর্গণনা হলেও তাতে ফল একই থাকলে নিপুণ সংবাদ সম্মেলন করে সাধারণ সম্পাদক পদে পুনঃভোটের দাবি তোলেন। পরে নির্বাচনী আপিল বোর্ডে জায়েদ খান ও কার্যকরী পরিষদের সদস্য চুন্নুর পদ বাতিলের আবেদন করেন তিনি।

জায়েদের বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে ভোট কেনার ‘প্রমাণ পাওয়ার’ কথা জানিয়ে আপিল বোর্ড তার প্রার্থিতা বাতিলের ঘোষণা করে। শপথ নিয়ে সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসেন নিপুণ।

জায়েদ খান তখন আদালতে যান। তার প্রার্থিতা বাতিল এবং নিপুণ আক্তারকে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী ঘোষণা করে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আপিল বোর্ডের দেওয়া সিদ্ধান্ত গত ২ মার্চ ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে রায় দেয় হাই কোর্ট।

হাই কোর্টের রায়ের পর শপথ নেন জায়েদ খান। কিন্তু নিপুণের এক আবেদনে গত ৬ মার্চ আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান চার সপ্তাহের জন্য হাই কোর্টের রায় স্থগিত করে দেন।

এছাড়া নিপুণ আক্তারকে লিভ টু আপিল করতে বলে বিষয়টি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। সেই সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক পদের ওপর স্থিতাবস্থা জারি করা হয়।

আদালতের ওই আদেশের দিনই নিপুণ সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসেন বলে গণমাধ্যমে খবর আসে। সর্বোচ্চ আদালতের আদেশ ‘অমান্য করে’ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসায় নিপুণের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনেন জায়েদ খান।

ওই আবেদনের ওপর শুনানি করে ১৪ মার্চ আপিল বিভাগ ‘কঠোরভাবে’ স্থিতাবস্থা মেনে চলার আদেশ দেয়। আপলি বিভাগ নিপুণের লিভ টু্ আপিল গ্রহণ করায় সেই স্থিতাবস্থার কার্যকারিতা আর থাকছে না বলে তার আইনজীবীর ভাষ্য। 

Also Read: নিপুণ-জায়েদ দ্বৈরথ: স্থিতাবস্থা ‘কঠোরভাবে’ মানতে বললো আপিল বিভাগ

Also Read: শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসলেন নিপুণ

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক