দর্শক মাতানো জমজমাট এক কনসার্টে তারার মেলা

বিশ্বকাপের উন্মাদনার মধ্যেই হয়ে গেল এক গান উৎসব; গানে গানে দর্শক মাতালেন ব্যান্ড তারকারা।

পাভেল রহমানবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Dec 2022, 07:49 PM
Updated : 2 Dec 2022, 07:49 PM

উপস্থাপনা মঞ্চ থেকে ‘আমি তারায় তারায় রটিয়ে দেব’ লাইনটি বলতেই দর্শক সারিতে নগর বাউল, জেমস, গুরু নানা সম্বোধনে সমস্বরে শুরু উল্লাস। তখন আর বুঝতে বাকি নেই মঞ্চে আসছেন রকস্টার।

দুপুর সোয়া ২টায় শুরু হওয়া কনসার্টে রাত ৯টায় মঞ্চে এল জেমসের নগর বাউল। মিনিট পাঁচেক প্রস্তুতির পরই সেই চেনা ভঙ্গিতে জেমস মঞ্চে দাঁড়ালেন এবং প্রথমেই গাইলেন ‘কবিতা তুমি স্বপ্নচারিনী হয়ে খবর নিও না’।

হাজারো দর্শক কণ্ঠ মেলালেন প্রিয় গায়কের সঙ্গে। এরপর শোনালেন ‘গুরু ঘর বানাইলা কী দিয়া’। তাল মেলাতে মেলাতে তখন আরও বেশি নাচতে শুরু করেছেন তারা, গাইছেন হৃদয় খুলে; দর্শক উন্মদনা ছড়িয়ে পড়েছে স্টেডিয়ামজুড়ে।

হাজারো দর্শকের এ কনসার্ট জেমস মঞ্চে ওঠার আগেই জমে যায়। এদিন যেন আর্মি স্টেডিয়ামের মঞ্চে বসেছিলন ব্যান্ড সংগীতের তারার মেলা। দুপুরের আগেই ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে দেখা মিলেছে ব্যান্ডপ্রেমীদের।

গত ১ ডিসেম্বরকে বাংলাদেশে ‘ব্যান্ড মিউজিক ডে’ ঘোষণা করে বাংলাদেশ মিউজিক্যাল ব্যান্ড অ্যাসোসিয়েশন (বামবা) ও চ্যানেল আই। এ দিন উদযাপনের অংশ হিসেবে এর পরদিন শুক্রবার এ কনসার্ট আয়োজনের সিদ্ধান্ত তখনই ছিল। ‘বাম্বা-চ্যানেল আই ব্যান্ড মিউজিক ফেস্ট-২০২২’ পাওয়ার্ড বাই গান বাংলা শিরোনামে আয়োজন করা হয় এ কনসার্ট।

দুপুর সোয়া ২টায় ভাইকিংস ব্যান্ডের পরিবেশনায় শুরু হয় কনসার্ট। এরপর মঞ্চে একে একে গান শুনিয়ে দর্শকদের মাতিয়ে রাখে পেণ্টগন, অবসকিওর, ফিডব্যাক, পাওয়ার সার্জ, শিরোনামহীন, মাকসুদ ঢাকা, রেনেসাঁ, দলছুট, ক্রিপটিক ফেইট, অর্থহীন, নগর বাউল, সোলস, মাইলস, আর্টসেল, ওয়ারফেজ।

সোয়া ৯টায় ‘রাতের তারা আমায় কি তুই বলতে পারিস/ কোথায় আছে কেমন আছে মা...’ লাইনটি যখন জেমস গেয়ে উঠলেন, কুয়াশাছন্ন আকাশে তারা দেখা না গেলেও মঞ্চের বাতিগুলো আর দর্শকদের হাতে থাকা মোবাইল ফোনের ডিসপ্লে জ্বলে উঠলো হাজার তারার মত।

মা গানটি শেষ করেই জেমস বললেন, ‘দুষ্টু ছেলেরা কি মাঠে আছে?’ দর্শক সারিতে ‘আছি গুরু’ বলে চিৎকার। এরপর দর্শককে সঙ্গে নিয়ে জেমস গাইলেন ‘দুষ্টু ছেলের দল’ গানটি। হঠাৎ গান থামিয়ে জেমস বললেন ‘তোমরা আমার জান, তোমরা আমার প্রাণ। যতদিন তোমরা আছো, ততদিন আমরা আছি।’ দর্শকদের উদ্দেশ্যে ছুঁড়ে দিলেন উড়ন্ত চুমু।

পরে জেমস গাইলেন ‘সুন্দরীতমা আমার’, ‘মীরা বাঈ’, ‘পাগলা হাওয়া’। ৪৫ মিনিটের পারফরমেন্স শেষ করলেন বলিউড সিনেমায় গাওয়া জেমসের জনপ্রিয় ‘ভিগি ভিগি’ গানটি দিয়ে।

দুপুর থেকে চলা কনসার্টে শিরোনামহীন গেয়েছে ‘বন্ধ জানালা’, ‘একা পাখি বসে আছে শহরের দেয়ালে’, ‘বোহেমিয়ান’। প্রয়াত ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুকে নিবেদন করে পরিবেশন করেছে ‘অবেলায়’ এবং তাদের পরিবেশনা শেষ হয় ‘হাসিমুখ’ গেয়ে।

‘মাকসুদ ঢাকা’ গেয়ে শোনায় ‘মেলায় যাই রে’সহ ব্যান্ডের জনপ্রিয় কয়েকটি গান।

রেঁনেসা গেয়েছে ‘আচ্ছা কেন মানুষগুলো এমন হয়ে যায়’, ‘হৃদয় কাঁদামাটির কোনো মূর্তি নয়’, ‘আজ যে শিশু পৃথিবীর আলোতে এসেছে’।

দলছুট গেয়ে শোনায় ‘আমি তোমাকে বলে দেব’, ‘তীর হারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দেব রে’, ‘দিন বাড়ি যাই’, ‘তুমি আমার বায়ান্নতা’ গানগুলো।

চ্যানেল আই ও বামবা জানায়, প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর দিবসটি পালন করা হবে এবং ডিসেম্বরের প্রথম শুক্রবার আয়োজন করা হবে এ কনসার্ট।

বামবার সভাপতি হামিন আহমেদ বলেন, “আইয়ুব বাচ্চু নেই, উনার স্মৃতি আছে। এই মানুষটির যেই স্বপ্নটি ছিল, সেই স্বপ্নে হাতে হাত দিয়ে ব্যান্ড মিউজিক ডে এর আয়োজন শুরু হয়। সেই যাত্রার শুরু থেকে যারা তার সাথে ছিলেন তাদের অভিনন্দন জানাই।”

ব্যান্ড মিউজিক ডে উদযাপন করতে দেশজুড়ে কনসার্ট আয়োজনের পরিকল্পনার কথাও জানান হামিন আহমেদ।

বাংলা ব্যান্ড সংগীতের অন্যতম পুরোধা আইয়ুব বাচ্চু ৯ বছর আগে চ্যানেল আইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগরের কাছে প্রস্তাব রেখেছিলেন, প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর দেশের সেরা ব্যান্ডগুলোর উপস্থিতিতে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে যেন কনসার্ট হয় এবং দিনটিকে যেন ‘ব্যান্ড মিউজিক ডে’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

তার এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে গত ৯ বছর ধরে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে ১ ডিসেম্বর পালিত হচ্ছে ‘ব্যান্ড মিউজিক ডে এবং কনসার্ট’। আইয়ুব বাচ্চুর স্বপ্ন এবং চ্যানেল আইয়ের উদ্যোগের সঙ্গে এবার যুক্ত হল বাংলাদেশ মিউজিক্যাল ব্যান্ড অ্যাসোসিয়েশন (বামবা)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক