এবার নির্মাণ-মৎস্যসহ চার খাতে ১০৭৭৬ কর্মী নেবে কোরিয়া

চার খাতের মধ্যে উৎপাদনে সাড়ে সাত হাজার, নির্মাণে এক হাজার ৯৫, মৎস্যে এক হাজার ৮৭৭ এবং জাহাজ নির্মাণে ৩০৪ জন কর্মী নেওয়া হবে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Feb 2024, 02:53 PM
Updated : 20 Feb 2024, 02:53 PM

বাংলাদেশিদের কর্মীদের জন্য এবার নির্মাণ এবং মৎস্য খাতও উন্মুক্ত করেছে দক্ষিণ কোরিয়া; এবছর মোট চার খাতে ১০ হাজার ৭৭৬ জন কর্মী নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ঢাকায় দেশটির দূতাবাস। 

ঢাকায় দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত পার্ক ইয়ং-সিক মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে নতুন দুই খাত যুক্ত করে এ বছরের কর্মী নেওয়া শুরুর ঘোষণা দেন । 

দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চার খাতের মধ্যে উৎপাদনে সাড়ে সাত হাজার, নির্মাণে এক হাজার ৯৫, মৎস্যে এক হাজার ৮৭৭ এবং জাহাজ নির্মাণে ৩০৪ জন কর্মী নেওয়া হবে।

‘আগে আসলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে বুধবার থেকে একাদশ ইপিএসের কোরিয়ান ভাষা পরীক্ষার জন্য বাংলাদেশিদের আবেদন নেওয়ার ঘোষণা দেন রাষ্ট্রদূত। 

এরপর সরকারি নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান বোয়েসেল পরীক্ষার জন্য আবেদনকারীদের ড্র এবং আবেদন পদ্ধতি ঘোষণা করবে। 

১১ মার্চ থেকে শুরু হয়ে মে পর্যন্ত চলা কোরীয় ভাষা সক্ষমতা পরীক্ষার জন্য মোট ৩০ হাজার ব্যক্তিকে নিবন্ধন করানো হবে। নিবন্ধনের সময় এখন থেকে মার্চ মাসের শুরু পর্যন্ত। 

আবেদনের নিয়মের কথা তুলে ধরে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একাদশ ইপিএস টিওপিআইকে-তে আবেদনের সময় চারটি খাতের কোনো একটি বেছে নিতে হবে। এই পরীক্ষার্থীরা দ্বাদশ ইপিএস টিওপিআইকে-তে আবেদন করতে পারবেন না। 

২০০৮ সাল থেকে ইপিএস কর্মসূচির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ করে আসছে কোরিয়া। এবার বাংলাদেশসহ ১৬ দেশ থেকে এক লাখ ৬৫ হাজার লোক নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে তারা। 

২০২২ সালে বাংলাদেশ থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ৮৯১ জন এবং ২০২৩ সালে চার হাজার ৮০৪ জন লোক নিয়োগ নিয়েছে দেশটি। 

বিশেষজ্ঞ নয়, এমন বিদেশি কর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে কোরিয়ার এমপ্লয়মেন্ট পারমিট সিস্টেম (ইপিএস) কর্মসূচির মধ্য দিয়ে। এক্ষেত্রে কেবল ভাষা জানা লাগে।