নতুন করদাতাদের রিটার্ন জমার সময় পুরো অর্থবছর

আয়কর আইন ২০২৩ অনুযায়ী এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Oct 2023, 03:58 AM
Updated : 22 Oct 2023, 03:58 AM

ব্যক্তি শ্রেণির আয়করদাতাদের নভেম্বরের মধ্যে আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন দাখিলের বাধ্যবাধকতা থাকলেও নতুন করদাতারা পরবর্তী অর্থবছরের শেষ পর্যন্ত এই সুযোগ পাবেন।

আয়কর আইন ২০২৩ অনুযায়ী নতুন করদাতাদের এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

আইনে বলা আছে, প্রত্যেক করদাতাকে করদিবসের মধ্যে বা ইহার পূর্বে রিটার্ন দাখিল করিতে হইবে।

সাধারণভাবে ৩০ নভেম্বর আয়কর দিবস হিসেবে পালিত হয়। তবে যারা কখনও রিটার্ন দাখিল করেননি, তাদের ক্ষেত্রে এই কর দিবসের ভিন্ন সংজ্ঞা দেওয়া হয়েছে আইনে।

তাদের জন্য কর দিবসের সংজ্ঞায় বলা হয়েছে, “পূর্বে কখনোই রিটার্ন দাখিল করেন নাই এইরূপ স্বাভাবিক ব্যক্তি করদাতার ক্ষেত্রে আয়বর্ষ শেষ হইবার পরবর্তী ৩০ জুন তারিখ।”

অর্থাৎ নতুন কোনো করদাতা এক বছরের আয় আয়কর যোগ্য হওয়ার হলে পরবর্তী অর্থবছরের শেষ দিন পর্যন্ত যে কোনো সময় রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন। এজন্য তাকে কোনো ধরনের জরিমানা বা দণ্ডের মুখোমুখি হতে হবে না।

পুরনো করদাতাদের নভেম্বরের পর রিটার্ন দাখিলের ক্ষেত্রে তারা আয়কর রেয়াত যেমন পাবেন না, তেমনি বিলম্ব মাশুলও গুণতে হয়।

নতুন আয়কর আইনে কর প্রদান পদ্ধতি সহজ করতে এক পাতার ফরমে স্বনির্ধারণী পদ্ধতিতে ৯ ধরনের তথ্য দিয়ে পূরণ করে কর কমিশনারের কাছে জমা দিতে পারবেন। ১৯৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশ অনুযায়ী সাধারণ রিটার্নে কয়েক পাতার ফরমে মোট ১৪ ধরনের তথ্য দিতে হয়।

বর্তমানে একজন ব্যক্তির বার্ষিক আয়ের প্রথম সাড়ে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত কোনো কর দিতে হবে না। পরবর্তী ১ লাখ টাকার উপর ৫ শতাংশ, এর পরের ৩ লাখ টাকায় ১০ শতাংশ, তার পরের ৪ লাখ টাকায় ১৫ শতাংশ, পরবর্তী ৫ লাখ টাকার উপর ২০ শতাংশ এবং এরও বেশি আয় থাকলে তার উপর ২৫ শতাংশ আয়কর দিতে হবে।

নারীদের ক্ষেত্রে করমুক্ত আয়সীমা ৪ লাখ টাকা।

(প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছিল ১ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)