তামিম ইকবালের আরেক অভিষেক

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবার ধারাভাষ্য দিলেন বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2023, 08:49 AM
Updated : 6 Dec 2023, 08:49 AM

তামিম ইকবালকে মাঠে ঢুকতে দেখেই মিডিয়া প্লাজার লিফটের সামনে ক্যামেরা-মাইক্রোফোন হাতে সংবাদকর্মীদের ভিড়। লিফট থেকে বের হয়েই হাসতে হাসতে তামিম বললেন, “আমার অফিস কোন দিকে?” এই মাঠে তার বিচরণ অনেক বছর ধরে, অসংখ্যবার এখানে এসেছেন। তবে এবারের আসা একটু অন্যরকম, মাঠের এদিকটাও তার একটু অচেনা। তাকে তার অফিস দেখিয়ে দিলেন সংবাদকর্মীরা। সেই অফিসের নাম-ধারাভাষ্যকক্ষ। 

তামিমের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে এখন শেষ বেলা। তবে নতুন এক অধ্যায়ের সূর্যোদয় হয়ে গেল তার। প্রথমবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধারাভাষ্য দিলেন বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যান। 

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-নিউ জিল্যান্ড টেস্টের প্রথম দিনের দ্বিতীয় সেশনে দুই দফায় ধারাভাষ্য দেন তামিম। 

ধারাভাষ্যের অভিজ্ঞতা অবশ্য তার কিছুটা আগেও হয়েছে। ২০২২ সালে বিপিএলে মাইক্রোফোন হাতে নিয়েছিলেন তিনি এই মিরপুরেই। তবে আন্তর্জাতিক ম্যাচে তার এই ভূমিকা এবারই প্রথম। 

সামাজিক মাধ্যমে আগের দিনই তামিম জানিয়ে রেখেছিলেন ধারাভাষ্য দেওয়ার কথা। শুক্রবার দুপুর ১২টা ৪০ মিনিট থেকে ১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত প্রথম দফায় ধারাভাষ্য দেন তিনি। এই সময় তার সঙ্গী ছিলেন ধারাভাষ্যে বাংলাদেশের মুখ হয়ে ওঠা সাবেক অলরাউন্ডার আতহার আলি খান।

পরের দফায় দুপুর ১টা ৪০টা থেকে ২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত তামিমের সহ-ধারাভাষ্যকার ছিলেন নিউ জিল্যান্ডের গ্রান্ট এলিয়ট। 

এই টেস্টে আরও একদিন ধারাভাষ্য দেওয়ার সম্ভাবনা আছে তার। সেটি হতে পারে টেস্টের তৃতীয় দিন। সামাজিক মাধ্যমে তামিম সেরকম ইঙ্গিতই দিয়ে রাখলেন।

"এই মাঠে তো অসংখ্যবারই এসেছি, তবে এবারের আসা অন্যরকম। অভিষেকের রোমাঞ্চের ছোঁয়া পেলাম যেন নতুন করে।"

"আগে খানিকটা ধারাভাষ্য দিয়েছি বিপিএলে। তবে আন্তর্জাতিক ম্যাচ, বিশেষ করে টেস্ট ম্যাচে ধারাভাষ্যের ব্যাপারটিই তো আলাদা। শুরুর দিনটি দারুণ উপভোগ করেছি। আমার সহ-ধারাভাষ্যকার যারা ছিলেন, প্রডিউসার ও সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা আমার উপস্থিতিকে আনন্দময় করে তোলার জন্য। আশা করি, খুব দ্রুতই মাইক্রোফোন হাতে আবার দেখতে পাবেন আমাকে।"

ধারাভাষ্যকক্ষে অবশ্য এখনই নিয়মিত দেখা যাবে না তাকে। এই টেস্টে মাইক্রোফোন হাতে নিলেন অতিথি ধারাভাষ্যকার হিসেবে। তবে খেলোয়াড়ি জীবন শেষে ধারাভাষ্যকার হওয়ার ইচ্ছের কথা আগেও নানা সময়ে বলেছেন তিনি। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও এবারের ওয়ানডে বিশ্বকাপে ধারাভাষ্য দেওয়ার প্রস্তাবও ছিল তার। তবে নানা কারণে তখন সুযোগ করে উঠতে পারেননি। সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ধারাভাষ্য দেওয়ার ইচ্ছে তার আছে।