টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দ. আফ্রিকা-শ্রীলঙ্কার গ্রুপে বাংলাদেশ, খবর দ্য টেলিগ্রাফের

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান জায়গা পেয়েছে এক গ্রুপে, আরেক গ্রুপে একসঙ্গে থাকছে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Jan 2024, 05:54 AM
Updated : 5 Jan 2024, 05:54 AM

আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপিং এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়নি আইসিসি। তবে ইংল্যান্ডের দা টেলিগ্রাফের দাবি, বিশ্বকাপের দলগুলিকে তাদের গ্রুপ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং তা প্রকাশও করেছে পত্রিকাটি। তাদের খবর অনুযায়ী, বাংলাদেশ থাকছে ‘ডি’ গ্রুপে।

এই গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গী দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, নেদারল্যান্ডস ও নেপাল।

আগামী জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে যৌথভাবে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর। প্রথমবারের মতো ২০টি দল অংশ নেবে এবারের আসরে।

প্রতি গ্রুপে ৫টি করে দল রেখে ২০ দলকে ভাগ করা হয়েছে ৪টি গ্রুপে। প্রতি গ্রুপ থেকে শীর্ষ ২ দল যাবে সুপার এইট পর্বে।

টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, শেষ মুহূর্তে কোনো পরিবর্তন না হলে দ্রুতই এই গ্রুপিং আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

‘এ’ গ্রুপে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান ঠাঁই পেয়েছে একসঙ্গেই। তাদের সঙ্গে আছে আয়ারল্যান্ড, কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্র। খেলাধুলার ইতিহাসের সবচেয়ে পুরোনো আন্তর্জাতিক লড়াইয়ের একটির পুনরাবৃত্তিও তাতে দেখা যাবে আবার।

১৮৪৪ সালে নিউ ইয়র্কে এক তিন দিনের ক্রিকেট ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা। কানাডার ২৩ রানের জয়ের সেই ম্যাচকে মনে করা হয় সব খেলা মিলিয়েই বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ।

‘বি’ গ্রুপে জায়গা পেয়েছে ক্রিকেটের অন্য দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ও গত দুই বারের দুই বিজয়ী অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড। তাদের গ্রুপসঙ্গী নামিবিয়া, স্কটল্যান্ড ও ওমান।

সহ-আয়োজক ওয়েস্ট ইন্ডিজ থাকছে গ্রুপ ‘সি’-তে নিউ জিল্যান্ড, আফগানিস্তান, পাপুয়া নিউ গিনি ও উগান্ডার সঙ্গে।

‘এ’ গ্রুপের সব খেলা হবে যুক্তরাষ্ট্রে, ‘বি’ ও ‘সি’ গ্রুপের সব খেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজে। কেবল বাংলাদেশের গ্রুপের খেলাই হবে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ মিলিয়ে।

যুক্তরাষ্ট্রে ক্রিকেটের প্রসার এবং সেখানকার বিপুল সংখ্যক এশিয়ান প্রবাসীদের ভাবনায় রেখে এশিয়ান ৭ দলের ৫টিরই ম্যাচ থাকবে যুক্তরাষ্ট্রে। তবে সম্ভাব্য রাজনৈতিক ও ভিসা জটিলতা এড়াতে আফগানিস্তানের কোনো ম্যাচ যুক্তরাষ্ট্রে রাখা হবে না।

প্রাথমিক পর্বের গ্রুপিং প্রকাশের দিন সুপার এইট পর্বের দুটি গ্রুপের সম্ভাব্য চিত্রও প্রকাশ করা হবে। প্রাথমিক সিডিং অনুযায়ী ৮টি দল সুপার এইটে উঠতে পারলে তাদের গ্রুপ জানতে পারবে আগে থেকেই।

'এ' গ্রুপে যেমন ভারত থাকছে 'এ ১' হিসেবে, 'বি' গ্রুপে 'এ-১' থাকছে ইংল্যান্ড। তারা গ্রুপ রানার্স আপ হয়ে সুপার এইটে উঠলেও সিডিং একই থাকবে।

সেই অনুযায়ী, সুপার এইটে এক নম্বর গ্রুপে থাকবে 'এ ১' ভারত, 'বি ২' অস্ট্রেলিয়া, 'সি ১' নিউ জিল্যান্ড ও 'ডি ২' শ্রীলঙ্কা। এই গ্রুপের ম্যাচগুলি হবে যুক্তরাষ্ট্রে। দুই নম্বর গ্রুপে থাকবে 'এ ২' পাকিস্তান, 'বি ১' ইংল্যান্ড, 'সি ২' ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও 'ডি ১' দক্ষিণ আফ্রিকা। এই গ্রুপের খেলা হবে ক্যারিবিয়ায়।

আগে থেকেই সিডিং পাওয়া এই দলগুলির বদলে তাদের গ্রুপ থেকে অন্য কোনো দল কোয়ালিফাইল করলে, বাদ পড়া দলের সিডিং পাবেন সেই দলটি। যেমন, দক্ষিণ আফ্রিকার বদলে বাংলাদেশ গ্রুপ পর্ব উতরাতে পারলে তাদের সিডিং হবে 'ডি ১', শ্রীলঙ্কার জায়গায় উঠতে পারলে সিডিং হবে 'ডি ২।'

ওয়েস্ট ইন্ডিজ শেষ পর্যন্ত 'সি ১' নাকি 'সি ২' থাকবে, তা নিয়ে কিছুটা সংশয় এখনও আছে বলে জানিয়েছেন দা টেলিগ্রাফ। তবে শেষ পর্যন্ত তাদের 'সি ২' থাকার সম্ভাবনাই বেশি।

বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়া সমর্থক ও পর্যটকরা যাতে আগে থেকেই পরিকল্পনা সাজাতে পারেন, সেজন্যই মূলত সুপার এইট পর্বের একটা সম্ভাব্য চিত্র আগে থেকেই তুলে ধরার এই ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।