বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের সব ম্যাচ সিলেট-চট্টগ্রামে

তিন টি-টোয়েন্টি, তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্টের কোনোটিই হবে না মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Feb 2024, 03:32 PM
Updated : 2 Feb 2024, 03:32 PM

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে অতিরিক্তি ম্যাচ হওয়া নিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটে আলোচনা-সমালোচনা আছে অনেক। এবার হতে চলেছে অভাবনীয় এক ব্যতিক্রম। মার্চ-এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফরে তিন সংস্করণের একটি ম্যাচও রাখা হয়নি ‘হোম অব ক্রিকেট’ বলে পরিচিত এই আঙিনায়।

তিন টি-টোয়েন্টি, তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্ট ম্যাচের এই সফরে সবগুলো ম্যাচই হবে সিলেট ও চট্টগ্রামে।

২০০৬ সালে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম হিসেবে যাত্রা শুরু শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের। এই প্রথমবার পূর্ণাঙ্গ কোনো সিরিজের একটি ম্যাচও রাখা হলো না এই মাঠে।

বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা এখন ব্যস্ত বিপিএলে। ফ্র্যাঞ্চাইজি এই আসরের ফাইনাল আগামী ১ মার্চ। সেদিনই ঢাকায় এসে সিলেটে চলে যাবে লঙ্কানরা।

বাংলাদেশের জন্য একটি ইতিবাচক দিক, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের মধ্যে থাকা দল লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথমে খেলবে এই সংস্করণেই। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের সবকটিই হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। ৪ মার্চ শুরু সিরিজ। পরের দুই ম্যাচ ৬ ও ৯ মার্চ।

প্রথম দুটি ম্যাচ সন্ধ্যা ৬টা থেকে, শেষটি দুপুর ৩টায়।

ওয়ানডে সিরিজ পুরোটাই হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে। ১৩ মার্চ শুরু সেই সিরিজ। পরের দুই ম্যাচ ১৫ ও ১৮ মার্চ। প্রথম দুই ম্যাচ দিন-রাতের, শুরু দুপুর আড়াইটায়। শেষটি শুরু সকাল ১০টায়।

এরপর সাদা পোশাকের লড়াইয়ের জন্য দুই দল আবার যাবে সিলেটে। সেখানে প্রথম টেস্ট ২২ মার্চ থেকে। দ্বিতীয় টেস্ট চট্টগ্রামে ৩০ মার্চ থেকে। টেস্ট দুটি শুরু সকাল ১০টা।

সবশেষ ২০২২ সালে বাংলাদেশ সফরে এসেছিল শ্রীলঙ্কা। সেবার ছিল শুধুই দুটি টেস্ট ম্যাচের সফর। ২০২১ সালে ছিল শুধুই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে লঙ্কানরা সবশেষ এসেছিল ২০১৮ সালে।