সমস্যা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন সাকিব

ব্যাট-বলের পারফরম্যান্সে ম্যান অব দা ম্যাচ হয়ে অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার বললেন, সমস্যা ধরন এখনও বুঝে উঠতে পারেননি তিনি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Feb 2024, 01:47 PM
Updated : 6 Feb 2024, 01:47 PM

অবশেষে ব্যাটে রানের দেখা মিলল। ব্যাট-বলের পারফরম্যান্সে সাকিব আল হাসান ফিরলেন তার অলরাউন্ডার সত্ত্বায়। তবে একটি সমস্যার সমাধান এখনও পাননি তিনি। সমস্যা কোথায়, সেটিই যে বুঝে উঠতে পারছেন না এখনও!

এই ‘সমস্যা’ সাকিবের চোখে, যেটিকে আদতে তিনি সমস্যা বলতেই নারাজ। গত বেশ কিছুদিন ধরেই তার এই চোখের সমস্যা নিয়ে দেশের ক্রিকেটে তোলপাড় হয়েছে অনেক। লন্ডন-সিঙ্গাপুরের বিশেষজ্ঞ চিকিৎকদের কাছে ছুটোছুটি করেছেন তিনি। তার সমস্যার ধরন নিয়ে ধোঁয়াশাও ছিল কিছু।

গত ২৪ জানুয়ারি বিসিবি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, এক্সট্রাফোভিয়াল সেন্ট্রাল সিরস কোরিওরেটনোপ্যাথি (সিএসআর) রোগে আক্রান্ত সাকিব। এটি রেটিনার একটি সমস্যা, যা দৃষ্টিশক্তিকে বাধাগ্রস্থ করে।

এবারের বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের হয়ে নিজের প্রথম তিন ইনিংসে চার রান করেন সাকিব। দুটি ম্যাচে ব্যাটিংয়েই নামেননি। বোলিংয়ে অবশ্য বরাবারের মতোই ধারাবাহিক ছিলেন তিনি।

মিরপুরে মঙ্গলবার দুর্দান্ত ঢাকার বিপক্ষে তিন ছক্কায় ২০ বলে ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। পরে বল হাতে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়।

বিপিএলের সিলেট পর্বের শেষ দিনে চোখের সমস্যার প্রশ্নে সাকিব পাল্টা প্রশ্ন করেন, “আপনাকে কে বলছে চোখের জন্য সমস্যা হচ্ছে?” পরে তিনি নানা প্রশ্নে বলেছিলেন, সমস্যাটাই ধরা যাচ্ছে না এখনও।

ম্যাচ অব দা ম্যাচ হওয়ার পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেও চোখের প্রশ্নে একই কথা বললেন তিনি।

“জানি না কোন সমস্যা হচ্ছে আমার। চেষ্টা করছি খুঁজে বের করতে। তবে এই মুহূর্তে যদি দলে অবদান রাখতে পারি, সেটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং সেটিই করে যেতে চাই আমি।”

ঢাকার বিপক্ষে এই ম্যাচে এক পর্যায়ে সাকিবের রান ছিল ১৪ বলে ১১। পরের ৫ বলে তিনি করেন ২৩ রান।

শুরুতে উইকেটে সময় কাটানোটাই জরুরি ছিল সাকিবের কাছে। তার বিশ্বাস, আরও দু-এক ম্যাচ এভাবে কিছুটা সময় ক্রিজে কাটাতে পারলেই সেরা চেহারায় ফিরতে পারবেন তিনি।

“আমি ভুগছিলাম… ক্রিজে কিছু সময় কাটাতে পেরে ভালো লাগছে। এটা প্রয়োজন ছিল। আশা করি, আরও কিছু ম্যাচে কিছু বল আমি খেলতে পারব এবং তা আমাকে আরও বেশি আত্মবিশ্বাস জোগাবে।”

“কিছু ম্যাচ অনুশীলন করাই প্রয়োজন ছিল আমার। কঠিন লড়াইয়ের টুর্নামেন্ট এটি, বিশেষ করে ব্যাটারদের জন্য ইনিংসের শুরুতে কাজটা সহজ নয়। আজকে কিছু সময় উইকেটে কাটাতে পেরে ভালো লাগছে। সামনেও উইকেটে সময় কাটাতে চাই। আরও গোটা দুয়েক ম্যাচ এভাবে খেলতে পারলে পুরো আত্মবিশ্বাস ফিরে পাব।”