‘এবার নিউ জিল্যান্ডকে হারানো হবে অন্যরকম আনন্দের’

সবশেষ ম্যাচটিতেই আছে জয়। জয়ের স্বাদ মিলেছে আগেও। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে জয় বাংলাদেশের জন্য বিরল কিছু নয়। জিম্বাবুয়ের পর সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে জয়ের স্বাদ মিলেছে কিউইদের বিপক্ষেই। তবে মাশরাফি বিন মুর্তজার মতে, এবার নিউ জিল্যান্ডকে হারাতে পারলে সেটি হবে বিশেষ কিছু!

ক্রীড়া প্রতিবেদক কার্ডিফ থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 June 2017, 02:43 AM
Updated : 9 June 2017, 02:43 AM

দেশের মাটিতে নিউ জিল্যান্ডকে দুই বার হোয়াইটওয়াশকরেছে বাংলাদেশ। এর আগে ২০০৮ সালে একগাদা ক্রিকেটার আইসিএলে যাওয়ার পর দেশের ক্রিকেটেযখন শঙ্কার মেঘ, সেটিও দূর করেছিল নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়। সবশেষ চ্যাম্পিয়ন্সট্রফির আগে আয়ারল্যান্ডেও বাংলাদেশ হারিয়েছে নিউ জিল্যান্ডকে।

শুক্রবারের ম্যাচটি তবু মাশরাফির কাছে একটুআলাদা। সেমি-ফাইনাল সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রাখতেই শুধু নয়, ম্যাচের ওজনের কারণেও জিততে চানবাংলাদেশ অধিনায়ক।

“নিউ জিল্যান্ডের সঙ্গে আমরা বেশ কিছু ম্যাচজিতেছি। সবশেষ মাচও জিতেছি। তবে এই ধরনের টুর্নামেন্টে হাইপ থাকে অন্যরকম, চাপ থাকেঅন্যরকম। এখানে জিততে পারাটা অন্যরকম আনন্দের হবে। নিউ জিল্যান্ডও ভালো খেলছে। বৃষ্টিতেভেসে না গেলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জিতত। এই ধরনের টুর্নামেন্টে, এই কন্ডিশনে নিউ জিল্যান্ডেরবিপক্ষে কাজটা সহজ হবে না। জিততে পারলে সেটি হবে দারুণ।”

নিউ জিল্যান্ডকে হারাতে হলে মূল বাধা হবে তাদেরবোলিং। ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি, অ্যাডাম মিল্নকে নিয়ে গড়া পেস আক্রমণ সামলানো সহজহবে না। তবে নিজের ব্যাটসম্যানদের ওপর ভরসা রাখছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

“ওদের বোলিং আক্রমণ অবশ্যই ভালো। গত কয়েক মাসেওদের বিপক্ষে ৫টি ম্যাচ খেলেছি আমরা। মিল্নকে ছাড়া ওদের বেশিরভাগ বোলারকেই আমাদের ড্রেসিংরুমের বেশিরভাগ ব্যাটসম্যানই খেলেছে। আমার বিশ্বাস ওরা সামলাতে পারবে ভালো। তারা অবশ্যইভালো বোলিং করছে। আশা করি, আমাদের ব্যাটসম্যানরাও দায়িত্ব নিয়ে খেলবে।”

বোলিং অবশ্য কেবলই একটি অংশ। নিউ জিল্যান্ডেরব্যাটিংও কম শক্তিশালী নয়। এই কন্ডিশনে নিউ জিল্যান্ডকে হারাতে বাংলাদেশকে করতে হবেব্যাটে-বলে অসাধারণ কিছু।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক