রেকর্ড সংগ্রহ গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে ফের হারাল ভারত

দাপুটে পারফরম্যান্সে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Nov 2023, 05:32 PM
Updated : 26 Nov 2023, 05:32 PM

প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের সবাই উপহার দিলেন ঝড়ো ফিফটি। শেষ দিকে একজন খেললেন ক্যামিও ইনিংস। রেকর্ড গড়া পুঁজির পর বাকিটা সারলেন বোলাররা। অস্ট্রেলিয়াকে ফের হারিয়ে সিরিজে আরও এগিয়ে গেল ভারত।

থিরুভানান্থাপুরামে রোববার দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ভারত জিতল ৪৪ রানে। নিয়মিত ক্রিকেটারদের অনেককে ছাড়া পাঁচ ম্যাচের এই সিরিজে খেলা স্বাগতিকরা এগিয়ে গেল ২-০ ব্যবধানে।

ইয়াশাসবি জয়সওয়াল, রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও ইশান কিষানের পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংসে ভারত এ দিন করে ৪ উইকেটে ২৩৫ রান।

এই সংস্করণে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের সর্বোচ্চ এবং যে কোনো দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর এটি। ২০১৮ সালে অকল্যান্ডে সর্বোচ্চ ২৪৩ রান করেছিল নিউ জিল্যান্ড।

দলটির বিপক্ষে ভারতের আগের সর্বোচ্চ ছিল এই সিরিজের প্রথম ম্যাচে রান তাড়ায় ২০৯ রান।

অস্ট্রেলিয়া এবার লক্ষ্য তাড়ায় ৯ উইকেটে ১৫৫ থেকে যেতে পারে ১৯১ পর্যন্ত।

ভারতকে বড় পুঁজি এনে দিতে ২৫ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৫৩ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা জয়সওয়াল। আরেক ওপেনার রুতুরাজ ৪৩ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৫৮। ৪ ছক্কা ও ৩ চারে ৩২ বলে ৫২ রান করেন কিষান।

প্রথম ম্যাচে শেষ ওভারে দলকে জেতানো রিংকু সিং এবার ৯ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৩১ রানে।

পরে বল হাতে সমান ৩টি করে শিকার ধরেন লেগ স্পিনার রাভি বিষ্ণই ও পেসার প্রাসিধ কৃষ্ণা। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে একটি উইকেট নেন বাঁহাতি স্পিনার আকসার প্যাটেল।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে জয়সওয়ালের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় ভারত। প্রথম দুই ওভারে যদিও বাউন্ডারি আসে মাত্র একটি। প্রথম ৭ বলে জয়সওয়ালের রান ছিল ৩। এরপর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের তিন বলের মধ্যে দুটি চার মেরে তিনি ডানা মেলে দেন। পরের ওভারে শন অ্যাবটের প্রথম পাঁচ বলে তিনটি চারের পর হাঁকান দুটি ছক্কা।

ভারতের রান পঞ্চাশ স্পর্শ করে চতুর্থ ওভারেই। ন্যাথান এলিসকে টানা তিন বাউন্ডারিতে জয়সওয়াল ২৪ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন পাওয়ার প্লের মধ্যে। পরের বলেই অবশ্য আউট হয়ে যান তিনি, ভাঙে ৩৫ বলে ৭৭ রানের উদ্বোধনী জুটি।

দলকে এরপর এগিয়ে নেন রুতুরাজ ও কিষান। দ্বিতীয় উইকেটে দুজনে গড়েন ৫৮ বলে ৮৭ রানের ইনিংস সেরা জুটি। কিষান প্রথম ২০ বলে ২১ রানের পর ঝড় তুলে ফিফটি পূর্ণ করেন ২৯ বলে।

কিষানের বিদায়ের পর অধিনায়ক সুরিয়াকুমার ইয়াদাভ ২ ছক্কায় ১০ বলে করেন ১৯ রান। ৩৯ বলে ফিফটি করে রুতুরাজ আউট হন শেষ ওভারে।

শেষ ৭ ওভারে ভারত তোলে ১১১ রান!

লক্ষ্য তাড়ায় প্রথম দুই ওভারে ৩১ রান তুলে ফেলে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ৩৫ থেকে ৫৮, ২৩ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তারা।

ম্যাথু শর্টকে বোল্ড করে শুরুর ভাঙেন বিষ্ণই। এই তরুণ পরের ওভারে বিদায় করেন জশ ইংলিসকে। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান এবার যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। মিড অফে দুর্দান্ত ক্যাচ নেন তিলাক ভার্মা।

সিরিজে প্রথম খেলতে নামা ম্যাক্সওয়েল বিদায় নেন একটি করে চার ও ছক্কা মেরেই। জয়সওয়ালের দারুণ ক্যাচে বাউন্ডারিতে ধরা পড়েন স্টিভেন স্মিথ।

সেখান থেকে পঞ্চম উইকেটে বিস্ফোরক এক জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে এগিয়ে নেন টিম ডেভিড ও মার্কাস স্টয়নিস। দুজনে বাঁচিয়ে রাখেন আশা। তবে ডেভিডকে ফিরিয়ে বিষ্ণই ৩৮ বলে ৮১ রানের জুটি ভাঙার পর ম্যাচ থেকে আস্তে আস্তে ছিটকে পড়ে সফরকারীরা।

২২ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৭ রান করেন ডেভিড। পরের ওভারে স্টয়নিস ফেরেন ২৫ বলে ৪ ছক্কা ও ২ চারে ৪৫ রান করে। তাদের পথ ধরে দ্রুত বিদায় নেন আরও তিন জন।

অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েডের ২৩ বলে অপরাজিত ৪২ ও ৩৬ রানের শেষ জুটিতে পরাজয়ের ব্যবধানই কমে শুধু।

আগামী মঙ্গলবার গুয়াহাটিতে হবে তৃতীয় ম্যাচ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২০ ওভারে ২৩৫/৪ (জয়সওয়াল ৫৩, রুতুরাজ ৫৮, কিষান ৫২, সুরিয়াকুমার ১৯, রিংকু ৩১*, তিলাক ৭*; স্টয়নিস ৩-০-২৭-১, এলিস ৪-০-৪৫-৩, ম্যাক্সওয়েল ২-০-৩৮-০, অ্যাবট ৩-০-৫৬-০, জ্যাম্পা ৪-০-৩৩-০, স্যাঙ্ঘা ৪-০-৩৪-০)

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১৯১/৯ (স্মিথ ১৯, শর্ট ১৯, ইংলিস ২, ম্যাক্সওয়েল ১২, স্টয়নিস ৪৫, ডেভিড ৩৭, ওয়েড ৪২*, অ্যাবট ১, এলিস ১, জ্যাম্পা ১, স্যাঙ্ঘা ২*; আর্শদিপ ৪-০-৪৬-১, প্রাসিধ ৪-০-৪১-৩, বিষ্ণই ৪-০-৩২-৩, আকসার ৪-০-২৫-১, মুকেশ ৪-০-৪৩-১)

ফল: ভারত ৪৪ রানে জয়ী

সিরিজ: ৫ ম্যাচ সিরিজে প্রথম দুটির পর ভারত ২-০তে এগিয়ে

ম্যান অব দা ম্যাচ: ইয়াশাসবি জয়সওয়াল