হৃদয়ের ফিফটি, ফের ব্যর্থ মুমিনুল-মিঠুন

কোনোমতে জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারল বিসিবি একাদশ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Nov 2022, 01:15 PM
Updated : 10 Nov 2022, 01:15 PM

শুরুতে কিছুটা লড়াই করলেন এনামুল হক। এক প্রান্ত আগলে রেখে দায়িত্বশীল ইনিংসে দলকে টানলেন তৌহিদ হৃদয়। মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুনসহ অন্য ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় খুব একটা বড় হলো না সংগ্রহ। তবে বোলারদের মিলিত অবদানে কোনোমতে জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারল বিসিবি একাদশ।

চেন্নাইয়ের এমএ চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার তামিল নাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন একাদশের বিপক্ষে শেষ এক ওয়ানডেতে ১৯ রানে জিতেছে সফরকারীরা। ২২০ রান তাড়ায় ২০১ রানে থমকে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস। প্রথম দুই ম্যাচে জেতা দলটি সিরিজ ঘরে তুলেছে ২-১ ব্যবধানে।

শেষ ম্যাচে ব্যাট হাতে হতাশ করেন সাদমান ইসলাম ও সাইফ হাসান। চার ওভারের মধ্যে সাজঘরে ফিরে যান তারা। প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দিয়ে ৪৪ রানের জুটি গড়েন এনামুল ও মুমিনুল। তবে ইনিংস বড় করতে পারেননি মুমিনুল। আউট হন ১৬ রান করে। 

অধিনায়ক মিঠুনও পারেননি কিছু করতে। ফিফটির সম্ভাবনা জাগালেও তা ছুঁতে পারেননি এনামুল। ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৪৪ বলে তিনি করেন ৪২ রান।

শেষ দিকের ব্যাটসম্যানদের নিয়ে লড়াই করেন হৃদয়। আগের ম্যাচে ৭৩ রানে অপরাজিত থাকা মিডল অর্ডার এই ব্যাটসম্যান শেষ ম্যাচে খেলেন দুটি করে ছক্কা ও চারে ৬৬ রানের ইনিংস। তার সৌজন্যেই লড়াই করার মতো পুঁজি পায় বিসিবি একাদশ।

রান তাড়ায় ৩৭ রানে ২ উইকেট হারায় তামিল নাড়ু। তৃতীয় উইকেটে ১০১ রানের জুটি গড়ে দলকে খুব ভালো অবস্থানে নিয়ে যান ড্যারিল ফেরারিও এবং অধিনায়ক প্রদোষ রঞ্জন পল। ফেরারিওকে বিদায় করে এই জুটি ভাঙেন মুমিনুল।

প্রদোষ একপ্রান্ত আগলে রেখে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন। ইনিংসের ৪৪তম ওভারে ৭০ রান করা এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানকে আউট করেন সাইফ হাসান। তখনও জয়ের জন্য ৩৭ বলে ৪৩ রান প্রয়োজন ছিল তামিল নাড়ুর। শেষের ব্যাটসম্যানরা মেলাতে পারেননি এই সমীকরণ।

তাইজুল ইসলাম, মুমিনুল ও সাইফের শিকার দুটি করে উইকেট। নাঈম হাসান নিয়েছেন একটি উইকেট। 

ভিসা জটিলতায় ব্যহত হওয়া সিরিজে প্রাপ্তির হিসাব মেলানো খুব কঠিন। এই সিরিজে খেলার জন্য টেস্ট দলের অনেক সদস্যই জাতীয় ক্রিকেট লিগে তেমন একটা খেলার সুযোগ পেলেন না। শুক্রবার দেশে ফেরার পর হয়তো খেলার সুযোগ পেতে পারেন তারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বিসিবি একাদশ: ৪৮.৪ ওভারে ২২০ (এনামুল বিজয় ৪২, সাদমান ১, সাইফ ২, মুমিনুল ১৬, মিঠুন ২৩, তৌহিদ ৬৬, জাকের ৪, তাইজুল ১৯, নাঈম ১৭, এনামুল হক ৭, খালেদ ৭*; জগনাথ ৬.৪-২-২৫-১, রাহুল ৬-১-৩৮-১, মোহান ১০-০-৪২-২, ত্রিলোক ৮-২-৩৬-৩, অজিত ১০-১-৪৪-২, অরভিন্দ ২-০-৯-০, প্রদোষ ৬-০-২৩-০)

তামিল নাড়ু একাদশ: ৪৭.৪ ওভারে ২০১ (মোকিত ৯, অরভিন্দ ২৩, ফেরারিও ৪০, প্রদোষ ৭০, মুকিলেশ ২০, অজিতেশ ৬, অজিত ১২, জগনাথ ৯, রাহুল ১, ত্রিলোক ১, মোহান ০*; খালেদ ৫.৪-০-৩১-২, নাইম ১০-০-২৪-১, সাইফ ১০-১-৫২-২, তাইজুল ১০-১-৩৬-২, এনামুল হক ৩-০-১৭-০, মুমিনুল ৯-০-৪০-২)

ফল: বিসিবি একাদশ ১৯ রানে জয়ী

সিরিজ: তামিল নাড়ু একাদশ ২-১ ব্যবধানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: ত্রিলোক নাগ

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক