আজকে কিন্তু মানুষের উড়োজাহাজে চড়ার সামর্থ্য হয়েছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

“আজকে উত্তরের সৈয়দপুরে প্রতিদিন ১৬-১৭টি ফ্লাইট চলছে। আমি যখনই উঠি, তখনই জিজ্ঞাসা করি যাত্রী কেমন। ওরা বলে ভালো, ৯০ থেকে ৯২ শতাংশ কখনো শতভাগ ভরা।”

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Jan 2023, 04:37 AM
Updated : 18 Jan 2023, 04:37 AM

বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, এখন দেশের মানুষের উড়োজাহাজে চড়ার সামর্থ্য হয়েছে এবং এটা অর্থনৈতিক অগ্রগতিকেই ইঙ্গিত করে।

বেসরকারি এয়ারলাইন্স নভোএয়ারের দশ বছর পূর্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার রাতে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

বনানীর একটি হোটেলে ওই অনুষ্ঠানে এভিয়েশন খাত সংশ্লিষ্ট সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি, উড়োজাহাজ নির্মাতা কোম্পানি এয়ারবাসের প্রতিনিধি এবং বিভিন্ন ট্র্যাভেল এজেন্সির প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

নভোএয়ার শিগগিরই এয়ারবাসের দুটো উড়োজাহাজ তাদের বহরে যুক্ত করছে বলে অনুষ্ঠানে জানান উদ্যোক্তারা।

রংপুরের সংসদ সদস্য টিপু মুনশি নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে অনুষ্ঠানে বলেন, “আজকে কিন্তু মানুষের উড়োজাহাজে চড়ার সামর্থ্য হয়েছে। আজকে উত্তরের সৈয়দপুরে প্রতিদিন ১৬-১৭টি ফ্লাইট চলছে। আমি যখনই উঠি, তখনই জিজ্ঞাসা করি যাত্রী কেমন। ওরা বলে ভালো, ৯০ থেকে ৯২ শতাংশ কখনো শতভাগ ভরা।

“এগুলো কিন্তু আমাদের অর্থনীতিরও প্রতিচ্ছবিও। যে দেশটির স্বপ্ন দেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু… একটি উন্নত, আধুনিক, অসাম্প্রদায়িক এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ।”

তবে এ খাত নিয়ে চ্যালেঞ্জের কথাও বলেন মন্ত্রী।

“আমি এই এভিয়েশন খাতের সবাইকে বলি, আমি প্রায়ই দেখা হলে (নভোএয়ারের উদ্যোক্তাদের) জিজ্ঞেস করি, তোমাদের লাভ টাভ হচ্ছে কি না। আমি সবসময় ভয়ে থাকি, লাভ হচ্ছে না বলে কবে আবার বন্ধ করে দেয়। তাহলে তো আমার বারোটা বেজে গেল, আমি (রংপুর) যাব কেমন করে। খুব চিন্তায় থাকি।

“তারা বলে, ‘লাভ হয়ত হচ্ছে না, কিন্তু আমরা চালাব।’ … আমার নিশ্চিত বিশ্বাস, সামনের দিনগুলো নভোএয়ারের খুব ভালো হচ্ছে। আমার চাওয়া নভো এয়ারের কাছে, দেশের বাইরে তাদের যাত্রা আরও বিস্তৃত হোক।”

বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেন, নভোএয়ার ‘শতভাগ কমপ্লায়েন্স মেনে’ ফ্লাইট পরিচালনা করছে। যাত্রীর নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করতে নভোএয়ার কর্তৃপক্ষ সব সময়ই সচেষ্ট।

নভোএয়ারের চেয়ারম্যান ফয়জুর রহমান অনুষ্ঠানে বলেন, “বিশ্বমানের সেবা প্রদানের প্রতিশ্রুতি নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু। যাত্রী সেবার মানের ক্ষেত্রে কখনোই আপস করেনি। প্রতিনিয়ত চেষ্টা করছি নতুন নতুন সেবা সংযোজনের মাধ্যমে সেবার মান বৃদ্ধি করতে।”

সময় মেনে ফ্লাইট পরিচালনা এবং নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করাই নভোএয়ারের ‘ব্যবসায়িক দর্শনের সর্বোচ্চ প্রাধিকার’ বললেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান। 

তিনি বলেন, “নিরাপত্তা ও সেবা, এই দুই মূল মন্ত্রকে আমরা সমানভাবে গুরুত্ব দিয়ে থাকি।”

নভোএয়ার এর পরিচালক ও চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার আরশাদ জামাল দীপু বলেন, “আমরা সম্মানিত যাত্রীদের চাহিদার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক গন্তব্য সম্প্রসারণ, বহরে আরও উড়োজাহাজ সংযোজন এর মাধ্যমে উন্নত যাত্রী সেবা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা রেগুলেটরদের কাছে একটা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড চাই।”

যাত্রী পরিবহনে ‘গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায়’ দেশের দশটি ট্র্যাভেল এজেন্সিকে নভোএয়ারের তরফ থেকে পুরষ্কৃত করা হয় অনুষ্ঠানে।

এজেন্সিগুলো হলো- শেয়ারট্রিপ, বি ফ্রেশ, গো জায়ান, এইচআইএস ট্রাভেল, ট্রিপ লাভার, সায়মন ওভারসিজ, ফ্লাইট এক্সপার্ট, ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেল কর্পোরেশন, ট্রাভেল চ্যানেল ও ট্রাইওটেল ট্রাভেল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক