মালয়েশিয়াতে বাংলাদেশ হাই কমিশনের ‘অব্যবস্থাপনা’ নিয়ে ক্ষোভ ভুক্তভোগীদের

নাভিদ ইবনে সাজিদ নির্জন
Published : 18 July 2022, 04:40 PM
Updated : 30 July 2022, 08:10 AM

মালশয়েশিয়ার  কুয়ালালামপুরে  বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালনে  'চরম অবহেলা' করছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ জানিয়েছেন বাংলাদেশি ভুক্তভোগীরা।

অনেকের অভিযোগ কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাই কমিশনের নম্বরে ফোন দেওয়া হলে তারা ফোন ধরেন না।

বিশেষ করে বাংলাদেশি পাসপোর্ট নবায়ন করতে হাই কমিশনের দপ্তরে গেলে দুই থেকে ছয় মাস পর্যন্ত সময় নেওয়া হয় এমন বক্তব্য অনেকের।

এমনকি হয়রানির তালিকায় রয়েছেন বিদেশি নাগরিকরাও। যারা বাংলাদেশে ভ্রমণ করতে ইচ্ছুক তারাও সহজে হাই কমিশন থেকে সেবা পান না।

ফেইসবুকে সামাদ আহমেদ বলে একজন ২০২১ সালে লিখেছেন,  "সাত মাস পেরিয়ে গেলেও পাসপোর্ট হাতে পাইনি।"

উপরন্তু হাই কমিশন দপ্তরে ফোন দিলে সেখানে কারো সাড়া না পাওয়া নিয়েও ক্ষোভ জানিয়েছেন তিনি।

হাই কমিশনের সেবা নিয়ে নাখোশ মিরাজ হোসাইনও। ফোনে সাড়া না মেলার অভিযোগ রয়েছে তারও।

পাসপোর্ট  পেতে ভোগান্তির অভিজ্ঞতা জানিয়ে 'বিশ্বের সবচেয়ে বাজে সেবা' মেলে কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাই কমিশনে ফেইসবুকে এমন মন্তব্য করেছেন নাসির হাজারি বিন আহাদ।

ভুক্তভোগীদের এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে কথা বলতে কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনের দপ্তরে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করি আমি। কিন্তু দপ্তরে কেউ সেই ফোন তোলেননি।

হাই কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা প্রচুর সরকারি সুবিধা ভোগ করে থাকেন। এরপরও দায়িত্ব পালনে তাদের এই অবহেলা অত্যন্ত দুঃখজনক। কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মকাণ্ডের প্রতি সরকারের কঠোর নজরদারি প্রত্যাশা করেছেন মালয়শিয়াতে থাকা  বাংলাদেশিরা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক