ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে বাসে বাড়তি ভাড়ার অভিযোগ

মানববন্ধনে অভিযোগ করা হয়, ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে নির্দিষ্ট পরিবহন না থাকায় টিকেটের সঙ্কট দেখিয়ে বাড়তি ভাড়া আদায় করছেন বাস মালিকরা।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 July 2022, 12:42 PM
Updated : 30 July 2022, 12:42 PM

ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটের বাসে আসন সংকট দেখিয়ে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগে মানববন্ধন করেছেন ‘আমরা গোপালগঞ্জবাসী’ নামে একটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ওই মানববন্ধনে অংশ নেন গোপালগঞ্জ জেলার শতাধিক বাসিন্দা।

মানববন্ধনে সংগঠনের সমন্বয়ক এস এম বাবুল হোসেন বলেন, “ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটের বাস পিরোজপুর ও খুলনা রুটে চলাচল করায় গোপালগঞ্জ রুটের যাত্রীরা পরিবহন সঙ্কটে ভুগছেন।

“এই রুটে নির্দিষ্ট পরিবহন না থাকায় টিকেটের সঙ্কট দেখিয়ে বাড়তি ভাড়া আদায় করছেন বাস মালিকরা।”

এই রুটে সরকারী ব্যবস্থাপনায় বিআরটিসি’র কোনো বাস চলাচল না করায় মালিকরা যাত্রীদের জিম্মি করে ফেলেছেন বলেও তার অভিযোগ।

পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটে যাত্রী চলাচল আরও বেড়েছে।

পাশপাশি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দর্শনাথী ও নেতা-কর্মীদের যাতায়াতের কারণে বাসের চাহিদা বেড়েছে বলেও জানান বাবুল।

তিনি বলেন, “পরিবহন সংকটের সুযোগ নিচ্ছে রুটে চলাচলকারি বাস মালিকরা, এতে গোপালগঞ্জের মানুষ অত্যন্ত ভোগান্তিতে রয়েছে।”

জানতে চাইলে গোপালগঞ্জ বাস মিনি বাস মালিক সমিতির সভাপতি ইলিয়াস হোসেন শনিবার বিকালে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান বাসে কোনো বাড়তি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে না।

“ঢাকা-গোপালঞ্জ রুটে যে সমস্ত বাস চলছে তারা সরকার নির্ধারিত ভাড়াই নিচ্ছে। যাত্রীদের থেকে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগের কোন ধরনের সত্যতা নেই।”

এর আগে মানববন্ধন থেকে ওই রুটে যাত্রীদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করার আহ্বান জানিয়ে সরকারের কাছে পাঁচটি দাবি তুলে ধরেন ‘আমরা গোপালগঞ্জবাসী’ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক।

দাবিগুলো হল-

>> সরকার নির্ধারিত ভাড়ায় রুটের সকল বাস চলাচল করতে হবে, কোনোক্রমে বেশি টাকা নেওয়া যাবে না।

>> ঢাকা-গোপালগঞ্জ রুটের বাস জেলার বাইরে চলাচল করতে পারবে না এবং রুটের শেষ স্টপেজ হবে টুঙ্গিপাড়া পৌর বাস টার্মিনাল (পাটগাতী বাজার)।

>> গোপালগঞ্জ দিয়ে চলাচলকারী অন্যান্য রুটের বাসে গোপালগঞ্জের নির্ধারিত ভাড়ায় নির্দিষ্ট সংখ্যক সিট বরাদ্দ রাখতে হবে।

>> নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় বিআরটিসি’র বাস ঢাকা-গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া রুটে চলাচল করতে হবে।

>> সড়ক নিরাপদ ও দুর্ঘটনারোধে সড়কের লেন বৃদ্ধিসহ ধীরগতির যানবাহন সড়ক থেকে তুলে দিতে হবে এবং ওই সকল যানবাহন চলাচলে আলাদা লেন তৈরি করে দিতে হবে।

মানববন্ধনে গোপালগঞ্জ জেলার বাসিন্দা গাজী জাহিদুল ইসলাম সোহাগ,সাইফুল ইসলাম,শক্তি শরীফ মোল্লা মো. আনিছুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক