জ্বালানির দামবৃদ্ধি: শাহবাগে বিক্ষোভ, মশাল মিছিল

এ দাম বাড়ানোকে অযৌক্তিক মন্তব্য করে তা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 August 2022, 03:20 PM
Updated : 6 August 2022, 03:20 PM

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো ও লোড শেডিংয়ের প্রতিবাদে ঢাকার শাহবাগ মোড়ে সড়ক আটকে বিক্ষোভ দেখিয়েছে একদল শিক্ষার্থী।

শনিবার বিকালে শাহবাগ মোড়ে প্রায় এক ঘণ্টা অবস্থান করে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগানে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

এসময় সেখানকার চারপাশের রাস্তায় যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটলে পুলিশ তাদেরকে মোড়ের মাঝখানে ঘিরে রাখে। পরে জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনায় শিক্ষার্থীরা সেখানে থেকে চলে যান।

আর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

সমাবেশ শেষে ছাত্র ফেডারেশনের নেতা-কর্মীরা মশাল হাতে শাহবাগ থেকে কাঁটাবন পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল করেন।

শাহবাগ মোড়ে অবস্থান কর্মসূচিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শহিদুল ইসলাম আপন বলেন, স্বাধীনতার পর এমন কোনো ইতিহাস নাই, এত পরিমাণ তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। ফলে গণপরিবহনের ভাড়া বাড়ছে।

তেলের এ দাম বাড়ানোকে অযৌক্তিক মন্তব্য করে তা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফাহিম আহমেদ বলেন, জ্বালানি তেলের দাম প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়ে গেল। আমরা দেখলাম গত বছরও যখন দাম বেড়েছে, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেড়েছে। কোনো জিনিসের দাম কমেনি। আজকে প্রত্যেকটা জিনিসের দাম নাগালের বাইরে। এ পরিস্থিতিতে জ্বালানির দাম বাড়ানো মূলত আত্মহত্যা।

“আমরা চাই রাষ্ট্র অন্তত সেবা খাতগুলো ভর্তুকি বহাল রাখুক। আইএমএফের প্রেসক্রিপশনে বাংলাদেশ চলবে না।”

জাতীয় জাদুঘরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি মশিউর রহমান খান বলেন, এ মূল্যবৃদ্ধি দেশে একটা নাভিশ্বাস পরিস্থিতি তৈরি করেছে। জনগণের বেঁচে থাকার দুর্ভিসহ হয়ে উঠেছে। দেশে যে সরকার আছে, সেটা আমরা দেখছি না।

তার অভিযোগ, দেশে একটা গোষ্ঠী ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে লুটপাটে ব্যস্ত।

“লুটপাটের অর্থ যোগাতে পেট্রোল, ডিজেল ও অকটেনের মূল্যবৃদ্ধি জনগণ মানবে না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক