সাংবাদিকতার মান রক্ষা করা খুবই প্রয়োজন: তথ্যমন্ত্রী

“মিডিয়া হাইজগুলোতে প্রত্যেক বিটে সাংবাদিক নেই, একজনকে দিয়ে তিনটি বিট করায়, চারটি বিট করায়, তখন জগাখিচুড়ি হয়ে যায়,” বলেন মন্ত্রী।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Nov 2023, 10:43 AM
Updated : 22 Nov 2023, 10:43 AM

বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিস্তৃতি বাড়ায় সবাই ‘সাংবাদিকতার ব্যাজ’ পরতে চায় জানিয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ সাংবাদিকতার মান রক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। এক্ষেত্রে তৃণমূলের সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণে জোর দিয়েছেন তিনি।

সচিবালয়ে বুধবার প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ প্রকাশিত ‘সাংবাদিকতার অ আ ক খ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শেষে তিনি বলেন, “গণমাধ্যমের বিকাশের সঙ্গে রাষ্ট্রের বিকাশ যুক্ত। আমাদের দেশে সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম যেভাবে ভাইব্রেন্ট অন্য দেশে কিন্তু তা নয়।

“সাংবাদিকতার মানটা রক্ষা করা খুবই প্রয়োজন। কারণ এখন সবাই সাংবাদিক হতে চায় বা সাংবাদিকতার ব্যাজ পরতে চায়। সেটা থেকে যেমন রক্ষা করা দরকার, একই সাথে যারা সত্যিকার অর্থে সাংবাদিকতা পেশায় প্রবেশ করে তাদের এই পেশা সম্পর্কে, পেশার গুরুত্ব, মর্যাদা এবং পেশাগত দক্ষতা সম্পর্কে সচেতন হওয়া প্রয়োজন।”

প্রান্তিক পর্যায়ের সাংবাদিকদের পেশার মর্যাদা সম্পর্কে সচেতন করা প্রয়োজন জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, “কারণ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে যখন অনৈতিক কোনো কিছু করে বা মানুষের বিরক্তির উদ্রেক হয় এমন ঘটনা ঘটে, যেগুলো ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি বিভিন্ন সভা-সমিতিতে তার বক্তৃতায় বলেছেন।

“তারা যদি তাদের পেশার মর্যাদা সম্পর্কে সচেতন থাকে তাহলে সেটা হওয়ার কথা নয়। সেজন্য আমি মনে করি প্রান্তিক পর্যায়ে যারা সাংবাদিকতা করে তাদের ট্রেনিংটা বেশি দরকার।”

বিটভিত্তিক সাংবাদিকদের দৈন্যদশার কথাও বলেছেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “এখানে বিভিন্ন বিটের সাংবাদিক আছে, অনেক সময় দেখা যায় এক বিটের সাংবাদিক অন্য বিটে গেলে সেটি ঠিকমত কভারই করতে পারেন না। মিডিয়া হাইজগুলোতে হয় কি প্রত্যেক বিটে সাংবাদিক নেই, একজনকে দিয়ে তিনটি বিট করায়, চারটি বিট করায়। তখন জগাখিচুড়ি হয়ে যায়। কারণ সে তো প্রত্যেক ক্ষেত্রে এক্সপার্ট নয়।

“আবার এমনও ঘটনা ঘটে একটি বিটের সাংবাদিক সে আসলে পুরোটা সেভাবে জানে না। অর্থনীতি বিট যদি করে তার অর্থনীতি নিয়ে পুরো ধারণা থাকতে হবে। পিআইবির দায়িত্ব আছে, তারা কাজ করলে মান উন্নয়ন করা সহজ হবে, সম্ভবপর হবে।”