ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণের দাবি শিক্ষার্থীদের

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় গাড়ি চাপায় এক নারীর প্রাণহানির ঘটনায় নিরাপদ ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের ভেতর যান চলাচলে নিয়ন্ত্রণের দাবি জানাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Dec 2022, 11:57 AM
Updated : 3 Dec 2022, 11:57 AM

গাড়িচাপায় এক নারীর প্রাণহানির ঘটনায় ক্যাম্পাসের ভেতর ‘বহিরাগতদের’ আনাগোনা ও যানবাহন নিয়ন্ত্রণের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী।

শনিবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে এই কর্মসূচিতে তারা ‘নিরাপদ ক্যাম্পাস চাই', 'ঢাবি শিক্ষার্থীদের জান-মালের নিরাপত্তা চাই', 'ক্যাম্পাসে যানবাহন নিয়ন্ত্রণ চাই', 'ক্যাম্পাস কি হাইওয়ে'- এমন সব প্ল্যাকার্ড তুলে ধরেন।

কর্মসূচিতে ডাকসুর শামসুন নাহার হল সংসদের সাবেক ভিপি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি বলেন, “আমাদের প্রথম দাবি হচ্ছে, ক্যাম্পাসে বহিরাগত ও ভারী যানবাহন চলাচল করতে পারবে না। ক্যাম্পাসে যানবাহন চলাচলের গতিসীমা নির্দিষ্ট করে দিতে হবে।

“দ্বিতীয় দাবি হচ্ছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সিটি করপোরেশনের অধীনে যেসব রাস্তা রয়েছে, সেগুলো বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। তৃতীয়ত ক্যাম্পাসে প্রবেশ পথের সড়কগুলোতে প্রত্যেকটিতে চেক পোস্ট বসাতে হবে।”

দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত রাখার কথা জানান তিনি।

এর আগে দুপুরে নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে প্ল্যাকার্ড হাতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন কয়েকজন শিক্ষার্থী। সেখানে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ (নিসচা) এর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহ্বায়ক রিফাত শাওন বলেন, শুক্র ও শনিবার ছুটির দিনে ক্যাম্পাসটা পার্কের মতো হয়ে যায়, কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এটি হতে পারে না। ক্যাম্পাসে যানবাহন চলাচলের ওপর কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

“আমাদের একটাই দাবি- নিরাপদ ক্যাম্পাস চাই। গতকাল একজন এখানে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন, কালকে তো আমাদের কোনো সহপাঠী দুর্ঘটনার শিকার হতে পারেন। নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিত করতে হলে ক্যাম্পাসের ভেতর দিয়ে বহিরাগত ও ভারী যান চলাচল বন্ধ করতে হবে।

“বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি, তারা যেন এ বিষয়কে একটু ভালোভাবে দেখেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখা তাদের দায়িত্ব। প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ, দয়া করে একবার শিক্ষার্থীদের দিকে তাকান।”

শুক্রবার বিকাল ৩টার দিকে দেবরের বাইকে শাহবাগ হয়ে হাজারীবাগে ভাইয়ের বাসায় যাচ্ছিলেন রুবিনা নামের এক নারী। তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক আজাহার জাফর শাহর প্রাইভেট কারের ধাক্কায় রুবিনা ছিটকে চলে যান ওই গাড়ির নিচে।

পেছন ও আশপাশ থেকে অনেকে চিৎকার করলেও চালক গাড়ি থামাননি। এক কিলোমিটার ছেঁচড়ে যাওয়ার পর রুবিনাকে আর বাঁচানোর উপায় ছিল না। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই ঘটনার পর সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে মশাল হাতে বিক্ষোভ করে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, সেখানে সাধারণ শিক্ষার্থীদেরও অংশ নিতে দেখা যায়। এছাড়া রাজু ভাস্কর্যের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ।

এসব কর্মসূচি থেকে বিক্ষোভকারীরা গাড়ি চাপায় ওই নারীর মৃত্যুর বিচারের পাশাপাশি ক্যাম্পাসে বহিরাগত নিয়ন্ত্রণ, অবাধ যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে প্রবেশ পথগুলোতে পাহারা চৌকি বসানোসহ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবি জানানো হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক