সোলেদার রুশ নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার দাবি অস্বীকার করল ইউক্রেইন

পূর্ব-ইউক্রেইনে লবণখনির এই শহরটিতে তুমুল লড়াই চলছে বলে জানিয়েছে ইউক্রেইন বাহিনী।

রয়টার্স
Published : 11 Jan 2023, 02:11 PM
Updated : 11 Jan 2023, 02:11 PM

পূর্ব-ইউক্রেইনের লবণখনির শহর সোলেদারের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার রুশ বাহিনীর দাবি অস্বীকার করেছে ইউক্রেইনের সেনাবাহিনী।

শহরটিতে তুমুল লড়াই চলছে বলে জানিয়েছে তারা। এ লড়াইকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার লড়াইয়ের সঙ্গে তুলনা করেছে ইউক্রেইন বাহিনী।

ইউক্রেইনের পূর্বাঞ্চলের সামরিক কমান্ডের মুখপাত্র শেরহি শেরেভাতি ইউক্রেইনের টিভিতে বলেছেন, ইউক্রেইনীয় বাহিনী রুশ বাহিনীকে যুদ্ধের সম্মুখসারি ভেদ করে এগুতে দেয়নি।

“শহরটি রাশিয়া ফেডারেশনের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়নি। সেখানে খুবই জটিল পরিস্থিতি বিরাজ করছে”, বলেন তিনি।

শত্রুপক্ষকে সবচেয়ে বেশি ঘায়েল করে এবং ইউক্রেইনের ক্ষয়ক্ষতি এড়িয়ে পরিস্থিতিকে কেমন করে স্থিতিশীল করা যায় সেটি নিয়ে এখন সামরিক কমান্ড কাজ করছে বলে জানান শেরহি।

রাশিয়ার ভাড়াটে সেনাদের গোষ্ঠী ওয়াগনার গ্রুপ বুধবার সোলেদার শহরের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করেছে। সোলেদারের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারলে তা রাশিয়ার জন্য সুবিধাজনক হবে।

কারণ, রুশ বাহিনীর লক্ষ্য সোলেদারের কাছের শহর বাখমুত দখলে নেওয়া। আর বাখমুত দখলে নিতে পারলে সেটি হবে ইউক্রেইনের পূর্বাঞ্চলীয় দনবাস অঞ্চলের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পথে রাশিয়ার জন্য বড় ধরনের অগ্রগতি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স সোলেদার শহরের মাঠ পর্যায়ের পরিস্থিতি নিরপেক্ষভাবে যাচাই করতে পারেনি।

ইউক্রেইনের পূর্বাঞ্চলের সামরিক কমান্ডের মুখপাত্র শেরহি বলেছেন, রাশিয়ার হাতে এখনও সোভিয়েত যুগের অনেক অস্ত্র আছে এবং তারা আধুনিক কিছু অস্ত্রের সঙ্গে সোভিয়েত যুগের শসস্ত্র যান ব্যবহার করছে।

তিনি আরও বলেন, “আমাদের পার্টনাররা আমাদেরকে আরও আধুনিক অস্ত্র দিচ্ছে। পশ্চিমা এইসব অস্ত্র নির্ভুলভাবে লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম এবং এতে ইউক্রেইনের সুবিধা হচ্ছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক