তুরস্কে স্থানীয় নির্বাচনে এরদোয়ানের দলের ভরাডুবি

ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন একরেম ইমামোগলু। যাকে ভবিষ্যতের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বলে ভাবা হচ্ছে।

রয়টার্স
Published : 1 April 2024, 02:00 PM
Updated : 1 April 2024, 02:00 PM

তুরস্কের স্থানীয় নির্বাচনে দেশটির প্রধান বিরোধী দল রিপাবলিকান পিপুলস পার্টি (সিএইচপি) দারুণ চমক দেখিয়েছে। দেশটির সর্ববৃহৎ নগরী ইস্তাম্বুল এবং রাজধানী আঙ্কারার দখল নিয়েছে দলটি।

ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন একরেম ইমামোগলু। যাকে ভবিষ্যতের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বলে ভাবা হচ্ছে।

রোববার তুরস্ক জুড়ে স্থানীয় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। বেশিরভাগ ভোট গণনা শেষ দেখে গেছে ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ১০ শতাংশ বেশি ভোট পেয়েছেন ইমামোগলু। আর তার দল সিএইচপি আঙ্কারাসহ দেশজুড়ে আরো ১৫টি নগরীতে মেয়র পদে জয়লাভ করেছে।

রোববারের ভোটের এই পরাজয়কে গত দুই দশকের বেশি সময় ধরে তুরস্ককে শাসন করে আসা এরদোয়ান এবং তার দল একে পার্টির জন্য সবচেয়ে বাজে হার বলা হচ্ছে।

সেইসঙ্গে রোববারের ভোট দেশটির রাজনৈতিক পটভূমিতে পরিবর্তন শুরু হওয়ার ইঙ্গিতও দিচ্ছে। রোববার রাতে দলের পরাজয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গেলেও মধ্যরাতের ভাষণে ভোটের ফলাফলকে ‘টার্নিং পয়েন্ট’ বলেছেন এরদোয়ান।

এরদোয়ানের এমনটা বলার কারণ ব্যাখ্যায় বিশ্লেষকরা বলেছেন, তিনি এবং তার দার একেপি খুব সম্ভবত থেকেও খারাপ ফলাফলের আশঙ্কা করেছিলেন। ভোটের আগের জনমত জরিপগুলোতে অবশ্য হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গিয়েছিল।

এরদোয়ানের দলের হারের পেছনে কাজ করেছে দেশে ব্যাপক মূল্যস্ফীতি, এবং ইসলামপন্থি ভোটারদের অসন্তোষ। অন্যদিকে,ইস্তাম্বুলে সিএইচপি’র ধর্মনিরপেক্ষ অবস্থানের বাইরে গিয়েও ইমামোগলুর তুমুল জনপ্রিয়তা রয়েছে।

রোববার রাতে হাজার হাজার সমর্থকদের সামনে ৫৩ বছরের ইমামোগলু বলেন, “যারা দেশ ও জাতি কী চায় তা বুঝতে পারে না তারা শেষপর্যন্ত পরাজিত হবেই। আজ রাতে ইস্তাম্বুলের এক কোটি ৬০ লাখ বাসিন্দা আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বী ও প্রেসিডেন্ট উভয়কেই একটি বার্তা দিয়েছে।”

ইমামোগলুর বক্তৃতার সময় তার সমর্থকদের একটি অংশ প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের পদত্যাগ চেয়ে স্লোগান দেয়।

সাবেক ব্যবসায়ী ইমামোগলু ২০০৮ সালে তুরস্কের রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। যাকে এখন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এরদোয়ানের সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবা হচ্ছে।

ইস্তাম্বুল এরদোয়ানের নিজের শহর এবং গত শতাব্দীর ৯০এর দশকে তিনি সেখানে মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন। এবারের মেয়র নির্বাচনের আগে দলীয় প্রার্থীর হয়ে ইস্তাম্বুলে ব্যাপক প্রচার চালিয়েছেন এরদোয়ান। কিন্তু তারপরও বিপুলভোটে জয়লাভ করেছেন ইমামোগলু। বিশ্লেষকরা একে তার প্রতি ইস্তাম্বুলবাসীদের সমর্থন এবং বিরোধীদের স্থায়ীত্ব উভয়ের পরিমাপক বলে বর্ণনা করেছেন।

আঙ্কারায় একেপি এর সদরদপ্তরের সামনে নিজ দলের সমর্থকদের উদ্দেশে এরদোয়ান বলেন, তার জোট দেশজুড়ে নিজেদের ‘জনপ্রিয়তার উচ্চতা হারিয়েছে’ এবং ভোটের মাধ্যমে এ পেছনে যেসব কারণ বেরিয়ে এসেছে সেগুলো দূর করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

“যদি আমরা ভুল করে থাকি, আমরা তা শুধরে নেব। যদি আমাদের মধ্যে কোনো ফাঁক থেকে থাকে, আমরা তা পূরণ করে নেব।”

আঙ্কারায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন সিএইচপির-র মনসুর ইয়াভাস।