কপ২৭: জলবায়ু সম্মেলনের খসড়া চুক্তি প্রকাশ

প্রকাশিত এ খসড়া চুক্তিটি এবারের সম্মেলনের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ সম্মতিপত্র হয়ে উঠতে পারে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2022, 10:50 AM
Updated : 17 Nov 2022, 10:50 AM

মিশরের শারম-আল-শেখে অনুষ্ঠিত কপ২৭ জলবায়ু সম্মেলনের প্রথম খসড়া চুক্তি প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের জলবায়ু সংস্থা।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এ খসড়া চুক্তিটি এবারের সম্মেলনের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ সম্মতিপত্র হয়ে উঠতে পারে বলে মন্তব্য বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

তবে ‘নন-পেপার’ লেবেল আটা থাকায় এই নথিটি চূড়ান্ত সংস্করণ থেকে এখনও অনেক দূরে আছে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

এ নথিতে গত বছর গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত জলবায়ু সম্মেলনের চুক্তির লক্ষ্যের পুনরাবৃত্তি করা হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার কমিয়ে আনার প্রতিশ্রুতির মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছিল গত বছরের জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন কপ-২৬।

এবারের খসড়া চুক্তিতে “নিরবচ্ছিন্ন কয়লা বিদ্যুতের ব্যবহার ধীরে ধীরে বা পর্যায়ক্রমে বন্ধ করার পদক্ষেপ তরান্বিত করতে এবং অকার্যকর জীবাশ্ম জ্বালানি ভর্তুকি যুক্তিযুক্ত করতে বা পর্যায়ক্রমে বন্ধ করতে” বলা হয়েছে।

এতে ভারত ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনুরোধ অনুযায়ী সব জীবাশ্ম জ্বালানি পর্যায়ক্রমে বন্ধ করার কথা বলা হয়নি।

এই খসড়ায় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য তহবিল গঠনের বিস্তারিতও অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দ্বীপ রাষ্ট্রগুলোসহ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে হুমকির মুখে থাকা অধিকাংশ দেশের প্রধান দাবি ছিল এটি। 

এর বদলে এতে সম্মেলনের কার্যসূচীতে ‘ক্ষয়ক্ষতির ক্ষেত্রে সাড়া দিতে তহবিল ব্যবস্থা সংক্রান্ত বিষয়াদি’ অন্তর্ভূক্ত করতে প্রথমবারের মতো পক্ষগুলোর সম্মত হওয়ার বিষয়টিকে ‘স্বাগত’ জানানো হয়েছে।

বিতর্কিত বিষয়টিতে কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য আলোচকদের সময় দিতে এতে ‘পৃথক একটি তহবিল তৈরি করা উচিত কিনা বা সেটি কেমন হওয়া উচিত’ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কোনো সময়সূচী অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।  

এই নথিতে ‘প্যারিস চুক্তির তাপমাত্রা লক্ষ্য অর্জনের জন্য সব স্তরে সব প্রচেষ্টা চালানোর গুরুত্বের ওপর জোর দেওয়া’ হয়েছে।

২০১৫ সালে ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তিতে দেশগুলো প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তাপমাত্রা বৃদ্ধি প্রাক শিল্পায়ন যুগের তুলনায় ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে আটকে রাখার জন্য যা করা দরকার, তা তারা করবে।

সম্মেলনে অংশ নেওয়া প্রায় ২০০ দেশের প্রতিনিধিদের চূড়ান্ত চুক্তিতে অন্তর্ভূক্তির জন্য জানানো অনুরোধের ভিত্তিতে এই নথিটি করা হয়েছে। আসছে দিনগুলোতে জলবায়ু নিয়ে আলোচনার জন্য এ নথি একটি ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে এবং এতে সম্ভবত আরও তথ্য যুক্ত হবে। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক