লেবাননে হিজবুল্লাহর একাধিক নিশানায় ইসরায়েলের বিমান হামলা

ইসরায়েলের উত্তরের সীমান্তে এর আগে লেবানন থেকে হামলার জবাবে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Dec 2023, 01:57 PM
Updated : 5 Dec 2023, 01:57 PM

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলেছে, তাদের বিমান বাহিনী লেবাননের বেশ কয়েকটি নিশানায় গেরিলা গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর নিশানায় হামলা চালিয়েছে।

ইসরায়েলের উত্তরের সীমান্তে এর আগে লেবানন থেকে হামলার জবাবে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

ইসরায়েল ডিফেন্স ফোর্সেস (আইডিএফ)এর মুখপাত্র ড্যানিয়েল হ্যাগারি বলেছেন, সন্ত্রাসী অবকাঠামো, অবস্থান এবং সামরিক বিভিন্ন স্থাপনা যেখানে অস্ত্র জমা থাকে সেসব জায়গায় হামলা চালানো হয়েছে।

গত অক্টোবরে গাজায় ইসরায়েলের যুদ্ধ শুরুর পর থেকেই দেশটির উত্তরের সীমান্তে ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়া বাহিনী হিজবুল্লাহ হামলা চালিয়ে আসছে।

ফিলিস্তিনি মুক্তিকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসও বলেছে, তারা লেবানন থেকে ইসরায়েলে রকেট হামলা চালিয়েছে।

ইসরায়েল ওই এলাকা থেকে হাজার হাজার বেসামরিক মানুষকে সরিয়ে নিয়েছে। তবে এই সংঘাত এখনও পুরোদস্তুর যুদ্ধে রূপ নেয়নি।

গত ৭ অক্টোবর গাজার সীমান্ত সংলগ্ন ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস নজিরবিহীন হামলা চালায়। হামলায় ১২০০ জন নিহত হয়েছে এবং তাদের অধিকাংশই বেসামরিক বলে ইসরায়েল জানিয়েছে। ওই দিন প্রায় ২৪০ জনকে বন্দি করে গাজায় নিয়ে জিম্মি করে রাখে হামাস।

হামাসের হামলার প্রতিশোধ নিতে ওই দিন থেকেই প্রায় সবদিক থেকে গাজা অবরুদ্ধ করে ভয়াবহ আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েল। তাদের অবিরাম বোমাবর্ষণ ও গোলা হামলায় এ পর্যন্ত ১৫ হাজার ৮০০’র বেশি গাজাবাসী ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, এদের প্রায় ৪০ শতাংশ শিশু।

ইসরায়েল এখন গাজার উত্তর ও দক্ষিণ দুই দিকেই হামলা চালাচ্ছে। গাজার উত্তরে জাবালিয়া শরণার্থী শিবির ঘিরে রেখেছে ইসরায়েল। এই শিবির হামাসের ঘাঁটি হিসাবে ব্যবহার হচ্ছে বলে দাবি করেছে তারা।

ওদিকে, ইসরায়েলের হামলায় গাজার দক্ষিণের বড় নগরী খান ইউনিসের অবস্থাও বিপর্যয়কর বলে জানিয়েছেন সেখানকার হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র। কেবল মঙ্গলবার সকালেই সেখানকার হাসপাতালে ৪৩ টি মৃতদেহ আনা হয়েছে বলে জানান তিনি।