সেনাপ্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করে মিয়ানমারে আইন জারি

নতুন আইনে ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের সব পুরুষ এবং ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সের সব নারীদের অন্তত দুই বছর সেনাবাহিনীর অধীনে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2024, 04:27 AM
Updated : 11 Feb 2024, 04:27 AM

চলমান যুদ্ধ পরিস্থিতিতে দেশের সব তরুণ-তরুণীদের জন্য সেনাপ্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করে আইন জারি করেছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার।

শনিবার এ আইন জারির ঘোষণা আসে বলে জানায় বিবিসি। যাতে বলা হয়, ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের সব পুরুষ এবং ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সের সব নারীদের অন্তত দুই বছর সেনাবাহিনীর অধীনে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তবে একটি বিবৃতিতে জান্তা সরকার বলেছে, তাদের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ‘প্রয়োজনীয় উপবিধি, পদ্ধতি, ঘোষণা আদেশ, বিজ্ঞপ্তি এবং নির্দেশাবলী প্রকাশ করবে’।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সশস্ত্র বাহিনী। অভ্যুত্থান রক্তপাতহীন ভাবে হলেও পরে সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখলের বিরুদ্ধে মিয়ানমার জুড়ে তীব্র বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। জান্তা সরকার কঠোর হাতে ওই বিক্ষোভ দমন করে। বহু বিক্ষোভকারী প্রাণ হারান। গ্রেপ্তার হন আরো অনেকে।

সে সময় বড় বড় শহরগুলোতে বিক্ষোভ দমন করা সম্ভব হলেও বিভিন্ন রাজ্যের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে আদিবাসী বিচ্ছিন্নতাবাদী নানা সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে দেশটির সেনাবাহিনীর লড়াই শুরু হয়।

গত বছর শেষভাগে বিচ্ছিন্নতাবাদী কয়েকটি দল জোট গঠন করে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে তুমুল আক্রমণ শুরু করে এবং গত কয়েক মাসে সেনাবাহিনীকে হারিয়ে তারা বেশ কিছু এলাকার দখল নিয়েছে।

Also Read: মিন্দাতে মিয়ানমার সেনাবাহিনী-অভ্যুত্থানবিরোধী বিদ্রোহীদের তুমুল লড়াই