ছুরি হামলার জেরে আয়ার‌ল্যান্ডের রাজধানীতে দাঙ্গা

ডাবলিনের পার্নেল স্কোয়ারে একটি স্কুলের সামনে এক ব্যক্তি ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2023, 08:03 AM
Updated : 24 Nov 2023, 08:03 AM

আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে ছুরি হামলায় তিন শিশুসহ পাঁচজন আহত হওয়ার পর নগরীর কেন্দ্রস্থলে দাঙ্গা হয়েছে। এই দাঙ্গার জন্য চরম ডানপন্থি ‘মতাদর্শ দিয়ে চালিত’ গুন্ডাদের দায়ী করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় ছুরি হামলার স্থলে হাজির হওয়া অভিবাসন-বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে জড়ানো বিক্ষোভকারীরা পুলিশের গাড়িসহ বেশ কিছু যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেয়।  

বিবিসি জানায়, স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টার দিকে ডাবলিনের পার্নেল স্কোয়ারে একটি স্কুলের সামনে এক ব্যক্তি ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করে। এ হামলায় পাঁচ বছর বয়সী এক মেয়ে শিশু ও ত্রিশোর্ধ্ব এক নারী গুরুতর আহত হন। আর ছয় বছর বয়সী এক মেয়ে ও পাঁচ বছর বয়সী এক বালক জখম হয়। 

পুলিশ চল্লিশোর্ধ আহত এক ব্যক্তিকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা ‘তদন্তের নির্দিষ্ট লাইন ধরে’ এগোচ্ছেন এবং এ হামলার সঙ্গে সম্পর্ক আছে এন অন্য কারও খোঁজ করছেন না। আহতদের সবাইকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শুধু বালকটিকে চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এরপর সন্ধ্যা ৬টার দিকে অভিবাসন-বিরোধী একদল লোক পার্নেল স্কোয়ারে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়। তারা দোকানপাট লুট করে ও যানবাহনে আগুন দেয়।  

পুলিশ বলেছে, “উগ্র ডানপন্থি মতাদর্শ দিয়ে পরিচালিত উন্মাদ, গুন্ডাদল অস্থিরতা শুরু করে।”

ছুরি হামলা নিয়ে ‘অনলাইনে ছড়ানো ভুয়া তথ্য অগ্রাহ্য’ করতে পুলিশ জনগণের প্রতি আহ্বান জানায়।

আয়ারল্যান্ডের আইনমন্ত্রী বলেন, “লোকজন বিভাজন তৈরির জন্য ভয়াবহ এই আক্রমণকে ব্যবহার করছে। এগুলো অভিবাসন নিয়ে নয়, যেসব শিশুরা হাসপাতালে আছে তাদের নিয়েও নয়।”

কয়েকজন কর্মকর্তা বিবিসিকে জানিয়েছেন, সন্দেহভাজন আক্রমণকারী আয়ারল্যান্ডের একজন নাগরিক এবং তিনি ২০ বছর ধরে দেশটিতে বসবাস করছেন। 

ডাবলিনের পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে। কিন্তু দাঙ্গা পুলিশ এখনও রাস্তায় রাস্তায় সতর্ক অবস্থান নিয়ে আছে।