'দ্রুত চাল দেওয়ায়' শিশুর আঙ্গুল ভাঙল দাবারু রোবট

“একটি চাল দেওয়ার পর রোবটকে তার চালের জন্য কিছুটা সময় দিতে হয় আমাদের। তবে, ছেলেটি তাড়াহুড়ো করায় রোবটটি তাকে ধরে ফেলে।”

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 July 2022, 10:06 AM
Updated : 25 July 2022, 10:06 AM

মস্কোতে আয়োজিত এক দাবা টুর্নামেন্টের খেলা চলাকালীন সাত বছর বয়সী শিশুর আঙ্গুল ভেঙে দিয়েছে ‘দাবারু’ এক রোবট। এরইমধ্যে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে ঘটনাটির একটি ভিডিও।

সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ছেলেটির দাবার একটি গুটি নিয়ে নিচ্ছে ওই রোবট। এর পর ছেলেটি নিজের চাল দিতে গেলে তার আঙ্গুলে চাপ দিয়ে ধরে রোবটটি।

মস্কো দাবা ফেডারেশনের দুই কর্মকর্তার তথ্য অনুযায়ী, নিজের আঙ্গুল প্লাস্টার করানোর পর টুর্নামেন্টে পুনরায় অংশ নিয়েছে শিশুটি।

রাশিয়ান রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থার স্থানীয় ভাষায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট দুজন কর্মকর্তা এই ঘটনায় শিশুটির “কিছুটা হলেও দায় রয়েছে” বলে মন্তব্য করেছেন।

“একটি চাল দেওয়ার পর রোবটকে তার চালের জন্য কিছুটা সময় দিতে হয় আমাদের। তবে, ছেলেটি তাড়াহুড়ো করায় রোবটটি তাকে ধরে ফেলে।” --রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা ‘তাস’কে বলেছেন মস্কো দাবা ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট সার্গেই লাজারেভ।

“রোবটের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই।”

“রোবটটি শিশুর আঙ্গুল ভেঙ্গেছে — এটি অবশ্যই খারাপ” --যোগ করেন তিনি।

“রোবটটি আমাদের ভাড়া করা। বেশ কয়েক জায়গায় দীর্ঘ সময় ধরে বিশেষজ্ঞের সহায়তায় প্রদর্শিত হয়েছে এটি।”

“এটি একটি কাকতালীয় ঘটনা। এর জন্য শিশুটিকে বাড়তি সতর্কবার্তা দেওয়া প্রয়োজন।”--রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা ‘আরআইএ নভোস্তি’কে বলেছেন দাবা ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট সার্গেই স্মাজিন।

“অবাক করা বিষয় যে এমন একটি ঘটনা ঘটল। তবে এটি ঘটেছে। হ্যাঁ, এমন ঘটনাও ঘটে।”

ওই রোবট ছেলেটির তর্জনী ধরে ফেলে এবং সজোরে চাপ দেয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে রাশিয়ার অনলাইন ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ‘বাজা’। তাকে রোবটের কবজি থেকে বের করতে ছুটে আসেন টুর্নামেন্টের কর্মীরা।

একই সময়ে তিন শিশুর সঙ্গে দাবা খেলছিল রোবটটি। ভুক্তভোগী শিশুটিকে মস্কোর নয় বছরের কম বয়সী ‘সবচেয়ে সম্ভাবনাময় ৩০ দাবারুর’ একজন হিসেবে আখ্যা দিয়েছে বাজা।

শিশুটির মা-বাবা আইনজীবির কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে চান বলে জানিয়েছেন লাজারেভ। তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, পরিবারটিকে সহায়তার চেষ্টা করবে তার প্রতিষ্ঠান।

ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের কাছে অবশ্য বেশ পরিচিত এই রোবট। স্মাজিনের মতে, প্রায় ১৫ বছর ধরে এটি ব্যবহার করছেন তারা। তিনি আরও যোগ করেন, তার স্মরণকালে এই প্রথম বার এমন ঘটনা ঘটল।

স্মাজিন জানিয়েছেন, রোবটটি নিষিদ্ধ করার বিষয়ে কোনো কথাবার্তা হয়নি। তবে, নিয়ন্ত্রকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আপডেট করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি এবং লাজারেভ।

“এটি বিশ্লেষণ করা প্রয়োজন যে কেন এমন হলো,” --বলেছেন স্মাজিন।

“রোবটটির অত্যন্ত প্রতিভাবান একজন উদ্ভাবক রয়েছে। তাই, এর জন্য বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা ইনস্টল করার প্রয়োজন হতে পারে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক