ঘূর্ণিঝড় শঙ্কা: আর্টেমিসের যাওয়া হলো না এবারও

এসএলএস রকেট আর ওরিয়ন স্পেসক্র্যাফট একবার ভিএবিতে ফেরত গেলে আর্টেমিস ওয়ানের উৎক্ষেপণের সম্ভাব্য তারিখ নভেম্বর মাস পর্যন্ত পিছিয়ে যেতে পারে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Sept 2022, 09:23 AM
Updated : 25 Sept 2022, 09:23 AM

বৈরি আবহাওয়ার শঙ্কায় আবারও আর্টেমিস ওয়ান মিশনের উৎক্ষেপণ পিছিয়ে দিয়েছে নাসা; প্রস্তুতি চলছে এসএলএস রকেট আর ওরিয়ন স্পেসক্র্যাফটকে হ্যাঙ্গারে ফিরিয়ে নেওয়ার।

এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো পিছিয়ে গেল পাঁচ দশক পরে নাসার চাঁদে ফেরার লক্ষ্যে প্রথম মিশন।

আর্টেমিস ওয়ান উৎক্ষেপণের জন্য সর্বশেষ ২৭ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবারকে নির্ধারণ করে রেখেছিল নাসা। এর আগে দুবার উৎক্ষেপণের চেষ্টায় প্রতিবারই যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে শেষ মুহুর্তে পণ্ড হয়েছে সেই উদ্যোগ।

সামনের সপ্তাহে ফ্লোরিডা উপকূলে ঘূর্ণিঝড় ইয়ান আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়াবিদরা। ঘূর্ণিঝড়ের আগেই বৈরি রূপ নিতে পারে কেনেডি স্পেস সেন্টারের আশপাশের এলাকার আবহাওয়া। আর লঞ্চপ্যাডে থাকা অবস্থায় এসএলএস রকেটের ঝড়ো বাতাস মোকাবেলা করতে পারার ক্ষমতা ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৮৫ মাইল বলে জানিয়েছে নাসা।

নিজস্ব ব্লগে নাসা জানিয়েছে, রকেট ও স্পেসক্র্যাফট ‘ভেহিকল অ্যাসেম্বলি বিল্ডিং (ভিএবি)’-তে ফিরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন নাসার প্রকৌশলীরা। এ বিষয়ে মহাকাশ গবেষণা সংস্থাটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর।

“শনিবার সকালের এক বৈঠকে মঙ্গলবারে উৎক্ষেপণের প্রস্তুতি বন্ধ করে স্পেস লঞ্চ সিস্টেম রকেট এবং ওরিয়ন স্পেসক্র্যাফট ভেহিকল অ্যাসেম্বলি বিল্ডিং-এর ফিরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দলগুলো।”-- নিজস্ব ব্লগে জানিয়েছে নাসা।

নাসার ২০২৫ সাল নাগাদ চন্দ্রপৃষ্ঠে মানব নভোচারীদের ফেরানোর পরিকল্পনার প্রথম ধাপ হচ্ছে আর্টেমিস ওয়ান মিশন। এ মিশনে কোনো নভোচারী না থাকলেও এসএলএস রকেটের মাধ্যমে ওরিয়ন স্পেসক্র্যাফটকে চাঁদের দিকে ছুড়ে দিয়ে উভয়ের কার্যক্ষমতা ও নির্ভরযোগ্যতা যাচাইয়ের চেষ্টা করছে নাসা।

প্রথমে ২৯ অগাস্ট আর্টেমিস ওয়ান উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা করেছিল নাসা। কিন্তু রকেটের ইঞ্জিনে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় ভেস্তে যায় সে চেষ্টা। ৩ সেপ্টেম্বরে আবারও এসএলএস রকেট উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা হয়। কিন্তু জ্বালানী সরবরাহের লাইনে ত্রুটির কারণে তরল হাইড্রোজেন বেরিয়ে যেতে থাকায় পণ্ড হয়ে যায় সে চেষ্টাও।

পরবর্তীতে তৃতীয়বারের মতো তারিখ ঠিক হয় ২৭ সেপ্টেম্বর। আগেভাগেই রকেটের জ্বালানী সরবরাহ ব্যবস্থার নির্ভরযোগ্যতা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে তাতে ইতিবাচক ফলাফলও পেয়েছিলেন প্রকৌশলীরা।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানিয়েছে, শুক্রবারেও তৃতীয় চেষ্টা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ছিলেন নাসার জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা। কিন্তু বৈরি আবহাওয়ার শঙ্কায় পাল্টে গেছে সে দৃশ্যপট।

আর্টেমিস ওয়ান উৎক্ষেপণের সম্ভাব্য তারিখ হিসেবে ২৭ সেপ্টেম্বরের পাশাপাশি বিকল্প হিসেবে ২ অক্টোবরের কথাও বলেছিল মহাকাশ গবেষণা সংস্থাটি। কিন্তু রকেট ও স্পেসক্র্যাফট লঞ্চপ্যাড থেকে ভিএবিতে ফেরত নিলে ২ অক্টোবরেও রকেট উৎক্ষেপণ সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছে ভার্জ।

লঞ্চপ্যাড থেকে ভিএবির দূরত্ব চার মাইল; আর মাঝের দূরত্ব পার হওয়ার প্রক্রিয়াটিও জটিল আর দীর্ঘ। এসএলএস রকেট আর ওরিয়ন স্পেসক্র্যাফট একবার ভিএবিতে ফেরত গেলে আর্টেমিস ওয়ানের উৎক্ষেপণের সম্ভাব্য তারিখ নভেম্বর মাস পর্যন্ত পিছিয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে সাইটটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক