অবশেষে নিজস্ব অ্যাপ স্টোর উন্মোচন করল ওপেনএআই

স্টোরের পাশাপাশি ওপেনএআই ‘চ্যাটজিপিটি টিম’ উন্মোচনের ঘোষণা দিয়েছে। এটি বিভিন্ন কোম্পানির সাবস্ক্রিপশনের কথা মাথায় রেখে তৈরি একটি বিশেষ চ্যাটবট।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Jan 2024, 10:42 AM
Updated : 11 Jan 2024, 10:42 AM

‘জিপিটি স্টোর’ নামের নিজস্ব অ্যাপ স্টোর উন্মোচন করেছে এআই প্রযুক্তির শীর্ষ কোম্পানি ওপেনএআই।

এটি একটি মার্কেটপ্লেস, যেখানে বিভিন্ন কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা ভিত্তিক অ্যাপের ‘পার্সোনালাইজড’ সংস্করণ মিলবে বলে বুধবার এক ব্লগপোস্টের মাধ্যমে ঘোষণা দিয়েছে কোম্পানিটি।

জিপিটি স্টোরটি জনপ্রিয় চ্যাটজিপিটি চ্যাটবটের মধ্যেই পাওয়া যাবে। এটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন জিপিটি তৈরি ও আবিষ্কার করতে পারবেন কিংবা গণিত শেখানো বা স্টিকার নকশা করার মতো বিভিন্ন কাজের জন্য এআইকে ইচ্ছে অনুসারে কাস্টমাইজ করতে পারবেন।

এর মাধ্যমে ওপেনএআই চ্যাটজিপিটির সাফল্যকে আরও বাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে রয়টার্স। গত বছর চ্যাটজিপিটি বিশ্বকে জেনারেটিভ এআইয়ের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিল। মানুষের মতো গদ্য ও কবিতা লেখার ক্ষমতা দিয়ে ব্যবহারকারীদের চমকেও দিয়েছিল এটি।

মুক্তির পরপরই বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়া অ্যাপগুলোর একটি হয়ে ওঠে চ্যাটজিপিটি। তবে, বিভিন্ন স্কুলে এর ব্যবহার নিষিদ্ধ হওয়ায় ও নিজস্বতা হারানোয় সে বৃদ্ধি কমে যেতে শুরু করে।

ওপেনএআই বলেছে, জিপিটি স্টোরটি প্রাথমিকভাবে সেই ব্যবহারকারীদের জন্য চালু করা হবে যারা অর্থ দিয়ে ‘চ্যাটজিপিটি প্ল্যান’ কিনেছেন। পাশাপাশি, কয়েক মাসের মধ্যে নিজেদের তৈরি ‘পার্সোনালাইজড এআই’ থেকে ব্যবহারকারীরা অর্থ আয়ের সুযোগ পাবেন বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি।

গেল নভেম্বরে নিজেদের প্রথম ‘ডেভেলপার’ সন্মেলনে জিপিটি স্টোরের ঘোষণা দেয় ওপেনএআই। ওই মাসের শেষ নাগােই এটি চালু হওয়ার কথা ছিল।

তবে, ডিসেম্বরে ওপেনএআই জিপিটি স্টোরের উন্মোচন পিছিয়ে দেয়। অভ্যন্তরীণ এক নথিতে কোম্পানি উল্লেখ করে গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়ার ওপরে ভিত্তি করে বিভিন্ন জিপিটি ‘আরও উন্নত’ করা অব্যাহত রেখেছে তারা।

সিইও স্যাম অল্টম্যানকে কোম্পানি বোর্ডের বিস্ময়করভাবে অপসারণ এবং কর্মচারীরা পদত্যাগ করার হুমকি দিলে তার পুনর্বহালের সময়েই এ উন্মোচন পিছিয়ে যায় বলে প্রতিবেদনে লিখেছে রয়টার্স।

স্টোরের পাশাপাশি ওপেনএআই ‘চ্যাটজিপিটি টিম’ উন্মোচনের ঘোষণা দিয়েছে। এটি বিভিন্ন কোম্পানির সাবস্ক্রিপশনের কথা মাথায় রেখে তৈরি একটি বিশেষ চ্যাটবট যেখানে কর্মীরা কর্মক্ষেত্রেই চ্যাটজিপিটি ব্যবহার করতে পারবেন।

চ্যাটজিপিটি টিম কোম্পানির তথ্য আলাদাভাবে সংরক্ষণ করে, তাই চ্যাটবটে লেখা যেকোনো তথ্য কোম্পানির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। চ্যাটজিপিটির এ বিশেষ সংস্করণ ব্যবহার করতে প্রতি মাসে একজন ব্যবহারকারীকে খরচ করতে হবে ২৫ থেকে ৩০ ডলার।